বাসস দেশ-২৭ : সুপ্রিমকোর্ট বার নির্বাচনের প্রথম দিনে ভোট দিলেন ২৯৭০ আইনজীবী

462

বাসস দেশ-২৭
সুপ্রিমকোর্ট-বার নির্বাচন
সুপ্রিমকোর্ট বার নির্বাচনের প্রথম দিনে ভোট দিলেন ২৯৭০ আইনজীবী
ঢাকা, ১৩ মার্চ ২০১৯ (বাসস): উৎসবমুখর পরিবেশে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির (সুপ্রিমকোর্ট বার) ২০১৯-২০২০ মেয়াদের নির্বাচনে দুইদিনব্যাপী নির্বাচনের প্রথম দিনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। প্রথম দিনে ২ হাজার ৯’শ ৭০ জন আইনজীবী ভোট দিয়েছেন।
নির্বাচন পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্য ও সুপ্রিমকোর্ট বার-এর বর্তমান সিনিয়র সহ-সম্পাদক এডভোকেট কাজী জয়নাল আবেদীন সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে ভাবে আজ সকাল ১০টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। ৪৪টি বুথে এক যোগে ভোটগ্রহণ করা হয়। মাঝখানে এক ঘণ্টার বিরতি দিয়ে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। আগামীকালও একই সময় থেকে ভোটগ্রহণ হবে। এ নির্বাচনে ভোটার রয়েছেন ৭ হাজার ৮’শ ২৫ জন আইনজীবী।
সুপ্রিমকোর্ট বার এর সুপারিনটেনডেন্ট (তত্ত্বাবধায়ক) নিমেষ চন্দ্র দাস জানান, এ নির্বাচনে ১৪ পদের বিপরিতে ৩৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রধান নির্বাচন কমিশন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক এ,ওয়াই মশিউজ্জামান। তার নেতৃত্বে একটি সাব কমিটি দায়িত্বপালন করছে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমার দিন ধার্য ছিল। মনোনয়ন প্রত্যাহার প্রক্রিয়া শেষে এখন চূড়ান্তভাবে ৩৩ জন প্রার্থী রয়েছেন। প্রতি বছর সুপ্রিমকোর্ট বার এর কার্যনির্বাহী কমিটির ১৪ টি পদে এ নির্বাচন অনুস্টিত হয়। এর মধ্যে ৭টি সম্পাদকীয় ও ৭টি নির্বাহী সদস্যের পদ রয়েছে।
উল্লেখ্য, বিগত বছরগুলোর নির্বাচনে দেখা গেছে এখানে প্যানেল ভিত্তিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। একটি সাদা প্যানেল অপরটি নীল প্যানেল। নির্বাচনে সাদা প্যানেল থেকে সভাপতি পদে সমিতির সাবেক সম্পাদক আইনজীবী এএম আমিন উদ্দিন ও সম্পাদক পদে বাংলাদেশ আইন সমিতির সাবেক সম্পাদক আইনজীবী আবদুন নুর দুলালের নেতৃত্বে ১৪ জনের একটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। অপরদিকে নীল প্যানেলে বার-এর সাবেক সভাপতি ও সাবেক এটর্নি জেনারেল এডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী এবং সম্পাদক পদে টানা ৬ বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহাবুব উদ্দিন খোকনের নেতৃত্বে ১৪ জনের একটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। এছাড়াও বিভিন্ন পদে স্বতন্ত্র প্রার্থীও রয়েছেন।
তবে সংগঠনের পক্ষ থেকে আলাদা আলাদা প্যানেল দেয়া হলেও সুপ্রিমকোর্ট বার-এলাকায় প্রার্থীদের একই ধরণের প্রচারপত্র ও কার্ড দিয়ে প্রচারণা চালানোর আচরণবিধি রয়েছে। সে অনুযায়ীই প্রার্থীরা প্রচারণা চালাচ্ছেন। গত বছরও এভাবে প্রচারণা চালাতে হয়েছে।
বাসস/এএসজি/ডিএ/২০২০/এইচএন