বাসস বিদেশ-৫ : কাশ্মীর সীমান্ত বরাবর হামলা চালানোয় ভারতকে দায়ী পাকিস্তানের

79

বাসস বিদেশ-৫
পাকিস্তান-ভারত-কাশ্মীর-সামরিক
কাশ্মীর সীমান্ত বরাবর হামলা চালানোয় ভারতকে দায়ী পাকিস্তানের
ইসলামাবাদ, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (বাসস ডেস্ক): পাকিস্তান মঙ্গলবার অভিযোগ করে বলেছে, ভারতের কয়েকটি যুদ্ধবিমান কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখা অতিক্রম করে তাদের আকাশসীমায় হামলা চালিয়েছে। বিতর্কিত এ অঞ্চলকে কেন্দ্র করে পরমাণু ক্ষমতাধর প্রতিবেশী এ দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার পর এ হামলা চালানো হয়। খবর এএফপি’র।
ভারত ও পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরের মধ্যবর্তী কার্যত সীমান্তের কথা উল্লেখ করে পাকিস্তানের সামরিক মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর টুইটারে এক বার্তায় বলেন, ‘ভারতীয় বিমানবাহিনী পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণরেখা (লাইন অব কন্ট্রোল) লঙ্ঘন করেছে।’
গফুর বলেন, এ আগ্রাসনের জবাবে পাকিস্তান বিমানবাহিনীর যুদ্ধবিমান তাৎক্ষণিকভাবে আকাশে মহড়া দেয়।
পাকিস্তান বিমানবাহিনীর তাৎক্ষণিক কার্যকর পদক্ষেপে ভারতীয় যুদ্ধবিমান বালাকোট থেকে চলে যাওয়ার সময় সেখানে বোমা বর্ষণ করে। তবে এতে কোন ক্ষয়-ক্ষতি হয়নি।
ভারতীয় বিমান থেকে যেখানে হামলা চালানো হয়েছে সেখানকার ব্যাপারে তিনি বিস্তারিত আর কিছু জানাননি।
নয়াদিল্লি থেকে এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি।
এদিকে ভারতের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ভারতীয় যুদ্ধবিমান জঙ্গিবাদ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন অবস্থান লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে। এসব লক্ষ্যস্থলের মধ্যে কট্টরপন্থী ইসলামি গ্রুপ জইশ-ই-মোহাম্মাদ পরিচালিত বিভিন্ন শিবির রয়েছে। গ্রুপটি ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরে চালানো আত্মঘাতী হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে। আর এই হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।
কাশ্মীরে বিগত তিন দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ এ হামলায় ভারতীয় আধা-সামরিক বাহিনীর ৪০ জনের বেশি সদস্য নিহত হওয়ার পর নয়াদিল্লি পাল্টা হামলার হুমকি দিয়েছিল।
এদিকে ইসলামাবাদ জানিয়েছে, ভারতের এ হামলায় তাদের কোন ক্ষতি হয়নি। তবে তারা হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেছে, ভারত আর কোন হামলা চালালে পাকিস্তান এর পাল্টা জবাব দেবে।
উল্লেখ্য, কাশ্মীরে লড়াইরত ভারত বিরোধী বিভিন্ন গ্রুপের অন্যতম হচ্ছে জইশ-ই-মোহাম্মাদ গ্রুপ। ১৯৪৭ সালে স্বাধীন হওয়ার পর থেকেই ভারত ও পাকিস্তান উভয় দেশ কাশ্মীরকে তাদের নিজের ভূখন্ড বলে দাবি করে আসছে।
বাসস/এমএজেড/১৪১৫/জুনা