বাসস দেশ-১৮ : ৪ হাজার ২৮০ কোটি ৩৬ লাখ ৪৮ হাজার টাকার ‘প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি-উন্নয়ন প্রকল্প’ বাস্তবায়ন শুরু

2237

বাসস দেশ-১৮
প্রাণিসম্পদ-প্রকল্প
৪ হাজার ২৮০ কোটি ৩৬ লাখ ৪৮ হাজার টাকার ‘প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি-উন্নয়ন প্রকল্প’ বাস্তবায়ন শুরু
ঢাকা, ৩০ জানুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের আওতায় “প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি-উন্নয়ন” (দি লাইভস্টক এন্ড ডেইরি ডেভলপমেন্ট প্রজেক্ট-এলডিডিপি) শীর্ষক একটি প্রকল্প-বাস্তবায়নের কাজ শুরু করেছে।
৪ হাজার ২৮০ কোটি ৩৬ লাখ ৪৮ হাজার টাকার এই প্রকল্পটি কাজ শুরু করেছে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এবং মেয়াদ শেষ হবে ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে। এই অর্থের মধ্যে বিশ্বব্যাংকের সহায়তা হচ্ছে ৩ হাজার ৮৮৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকার বেশি।
প্রকল্পটির কার্যক্রম চলছে পার্বত্য ৩টি জেলা ব্যতীত দেশের ৮ বিভাগের ৬১টি জেলার সকল উপজেলা, সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভায়।
প্রকল্পের মূলকার্যক্রমের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- প্রাণিসম্পদখাতের উৎপাদশীলতা বৃদ্ধি এবং উদ্ভাবন, উৎপাদক-গ্রুপ প্রতিষ্ঠা, জলবায়ুর স্মার্ট-উৎপাদন কৌশলের উন্নয়ন এবং মার্কেট-লিংকেজ এবং ভ্যালুচেইনের উন্নয়নে বিনিয়োগ।
এই প্রকল্পের মাধ্যমে প্রাণিসম্পদ উন্নয়নে বাস্তবসম্মত জলবায়ু সহিষ্ণু সরকারি অবকাঠামোর উন্নয়ন, ভোক্তা সচেতনতা এবং পুষ্টি নিশ্চিতকরণ, প্রাণি সম্পদের উৎপাদন ব্যবস্থায় ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা ও খাপ খাওয়ানোর কৌশলের উন্নতি, প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা এবং জ্ঞান চর্চার প্ল্যাটফর্ম প্রতিষ্ঠা, খাদ্যনিরাপত্তা এবং গুণগতমান নিশ্চিতকরণ,প্রাণি সম্পদের বীমা ব্যবস্থা চালুকরণ, জরুরি অবস্থার মোকাবেলা এবং প্রকল্প ব্যবস্থাপনা, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়নের ব্যবস্থা থাকছে।
সম্প্রতি বিশ্বব্যাংকের সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল “প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন” প্রল্পটি বাস্তবায়নের জন্য ‘দি ক্লাইমেট স্মার্ট ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান-সিএসআইপি’ ও ‘ম্যাক্সিমাম ফিন্যান্স ফর ডেভলপমেন্ট-এমএফডি’ বিষয়ে আলোচনা ও মতবিনিময়ের জন্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে এক সভায় মিলিত হন।
মৎস্য ও পাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুর সভাপতিত্বে সভায় যোগ দেন বিশ্বব্যাংকের এগ্রিকালচার গ্লোবাল প্রাকটিস বিভাগের ডিরেক্টর ম্যানেজার মার্টিন ভান নিইউকুপের নেতৃত্বে সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল।
মন্ত্রণালয়ের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সচিব রইছুল আলম মন্ডলসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য অধিদফতরের মহাপরিচালক, প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক, এলডিডিপি প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক ড. গোলাম রব্বানী প্রমুখ।
প্রতিমন্ত্রী বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধিদের আশ্বাস দিয়ে বলেন, বাংলাদেশের বিশাল জনগোষ্ঠির ভাগ্যোন্নয়নের জন্য প্রণীত এই প্রকল্প-বাস্তবায়নে মন্ত্রণালয় সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাবে এবং যথাসময়েই এর মেয়াদ শেষ করবে। বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধিরাও প্রকল্প বাস্তবায়নে তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন বলে জানান।
বাসস/সবি/এমএন/১৬৪৫/কেজিএ