এই নির্বাচন ইতিহাসে একটা ঐতিহ্য সৃষ্টি করবে : মাহবুব তালুকদার

324

ঢাকা, ৩ জানুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রশংসা করে বলেছেন, এই নির্বাচন বাংলাদেশের নির্বাচনের ইতিহাসে একটা ঐতিহ্য সৃষ্টি করবে।
তিনি বলেন, ‘আগের নির্বাচন অংশীদারিত্বমূলক হয়নি। এই প্রথম একটা অংশীদারিত্বমূলক, অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আমরা জাতিকে উপহার দিতে পেরেছি। আমি মনে করি, এ নির্বাচন বাংলাদেশের নির্বাচনের ইতিহাসে একটা ঐতিহ্য সৃষ্টি করবে। এ নির্বাচনের পথ ধরেই পরবর্তী ইতিহাসে যে নির্বাচনের ধারা সেটা হয়তো ইতিহাসের পাতায় লিপিবদ্ধ থাকবে।’
আজ বিকেলে নির্বাচন ভবনের ফোয়ারা চত্বরে সফল নির্বাচন উপলক্ষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে মাহবুব তালুকদার এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘জীবনের শেষ পর্যায়ে এসে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ চারজন নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ হয়েছে। সেজন্য আমি মনে করি, জীবনের প্রথম আমলা হিসেবে কাজ করা এবং জীবনের শেষ প্রান্তে এসে এগুলো আমার জীবনে গৌরব গাথা হয়ে থাকবে।’
নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘নির্বাচন যে এতো বিশাল কর্মযজ্ঞ, এ বিষয়ে সত্যি আমার ধারণা ছিল না। কারণ নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে কাজ করার কিংবা নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে কাজ করার সুযোগ আমার আমলা জীবনে কখনও হয়নি। এখানে এসে এই বিশাল কর্মকান্ড দেখে আমার জীবনের একটা বিশাল অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করতে পেরেছি। কী নিরলস প্রচেষ্টায় আপনারা এই নির্বাচনটা সফল করেছেন, সর্বাঙ্গীনভাবে সফল করেছেন, এটা আমি যদি প্রত্যক্ষভাবে না থাকতাম, তাহলে দেখতে পারতাম না। বুঝতে পারতাম না।’
নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিবের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘আমি লক্ষ্য করেছি এই বিশাল কর্মযজ্ঞের যিনি কেন্দ্রবিন্দু, আমাদের নির্বাচন কমিশনের সচিব মহোদয় এবং তার সঙ্গে এখানে যারা পরবর্তী নির্বাচন সৈনিক ছিলেন, অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম সচিব, উপ-সচিব এবং অন্যান্য যারা ছিলেন, তারা কী নিরলস প্রচেষ্টার মাধ্যমে এই নির্বাচনকে সফল করেছেন, এটাও আমার জন্য অনেক বিশাল এক অভিজ্ঞতা হয়ে থাকবে।’
মাহবুব তালুকদার প্রধান নির্বাচন কমিশনারের প্রশংসা করে বলেন, তিনি কমিশনার একজন মুক্তিযোদ্ধা এবং যোদ্ধার মতই এই বিশাল কর্মযজ্ঞে সবাইকে নেতৃত্ব দিয়েছেন।