বাসস প্রধানমন্ত্রী-২ (প্রথম কিস্তি) : মন্ত্রিসভায় রফতানি নীতি ২০১৮-২১ অনুমোদন

164

বাসস প্রধানমন্ত্রী-২ (প্রথম কিস্তি)
মন্ত্রিসভা-রফতানি নীতি
মন্ত্রিসভায় রফতানি নীতি ২০১৮-২১ অনুমোদন
ঢাকা, ৬ নভেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : রফতানি বাণিজ্যে গতিশীলতা সৃষ্টি, ব্যবসা-বাণিজ্য প্রতিযোগিতামূলক করা এবং প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ় করতে মন্ত্রিসভা আজ রফতানি নীতি-২০১৮-২১-এর খসড়া অনুমোদন করেছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ তাঁর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার সাপ্তাহিক বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।
মন্ত্রি পরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বৈঠক শেষে বাংলাদেশ সচিবালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বলেন, বর্তমান রফতানি নীতি ২০১৫-১৮ হালনাগাদ করে নতুন রফতানি নীতি প্রণয়ন করা হয়েছে।
তিনি বলেন, নতুন রফতানি নীতিতে আগের নীতির সঙ্গে সমন্বয় করে সংজ্ঞা বিষয়ক একটি পৃথক ও নতুন অধ্যায় সংযুক্ত করা হয়েছে এবং নমুনা, সুগন্ধী চাল ও পরোক্ষ রফতানির মত বিষয়গুলো সম্পর্কে নতুন সংজ্ঞা যুক্ত করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, পাশাপাশি, ডেনিম, একটিভ ফার্মাসিটিক্যাল ইনগ্রেডিয়েন্টস (এপিআই) এবং রি-এজেন্ট (চামড়া, অ-চামড়া এবং সিনথেটিক থেকে তৈরি জুতা)-এর মত তিনটি নতুন খাত যোগ করা হয়েছে। যার ফলে বর্তমানে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার প্রাপ্ত খাতের সংখ্যা ১৫টিতে দাঁড়িয়েছে।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, হালকা প্রকৌশল পণ্য (মটর সাইকেল, ব্যাটারি), ফটোভলটাইক মোডিউল (সোলার এনার্জি), কাজু বাদাম (কাঁচা ও প্রক্রিয়াজাত) জ্যান্ত ও প্রক্রিয়াজাত কাঁকড়া এবং খেলনার মত পাচঁটি নতুন পণ্য বিশেষ উন্নয়ন ভিত্তিক খাত হিসেবে সংযুক্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি, ওয়েট ব্লু চামড়ার উপজাত পণ্য ওয়েট ব্লু স্পিøট লেদারকে রফতানিযোগ্য পণ্য হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে।
চলবে/বাসস/জিএম/অমি/১৮৩৭/আরজি