বাসস সংসদ-৬ : সংসদে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে সর্বসম্মত প্রস্তাব গৃহীত

520

বাসস সংসদ-৬
রোহিঙ্গা-শেখ হাসিনা-ধন্যবাদ
সংসদে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে সর্বসম্মত প্রস্তাব গৃহীত
সংসদ ভবন, ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ (বাসস) : রোহিঙ্গা ইস্যুতে মানবিক ও উদারনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি, বলিষ্ঠ নেতৃত্ব প্রদানে ‘ইন্টার প্রেস সার্ভিস নিউজ এজেন্সি, ইউএন থেকে ‘হিউম্যানিটেরিয়ান এ্যাওয়ার্ড’ এবং গ্লোবাল হোপ কোয়ালিশন থেকে ‘স্পেশাল ডিস্টিংকশন এ্যাওয়ার্ড ফর লিডারশিপ’ সম্মাননা দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতভাবে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে।
আজ সংসদে ১৪৭ বিধিতে হুইপ শহীদুজ্জামান সরকার আনীত প্রস্তাবের ওপর আলোচনা শেষে এ ধন্যবাদ প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।
এর আগে আলোচনায় অংশ নিয়ে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার পর থেকে মিয়ানমারের বারবার উস্কানীর পরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুটনৈতিকভাবে তা মোকাবেলা করেছেন। এজন্য বিশ্বে তিনি শান্তির নেত্রী হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। বিশ্ববাসী এখন বাংলাদেশের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। এটা তাঁর কুটনৈতিক সফলতার কারণেই সম্ভব হয়েছে।
তিনি বলেন, এদেশের উন্নয়ন, অগ্রগতি যারা সহ্য করতে পারছে না তারা নির্বাচনকে বানচাল করতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। নির্বাচনের ধুয়া তুলে যারা দেশকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিতে চায় এরা আজ এক হয়েছে।
কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েই নয়, মিয়ানমারকে আন্তর্জাতিক কাঠগড়ায় এই প্রথম দাঁড় করিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাদেরকে আন্তর্জাতিক ফোরামে জবাবদিহি করতে হচ্ছে।
তিনি বলেন, শেখ হাসিনা যেখানে হাত দিয়েছেন, সেখানেই সফল হয়েছেন। আন্তর্জাতিক চাপে এই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার অবশ্যই বাধ্য হবেন।
মন্ত্রী বলেন, দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন আবারো খেলাধুলা শুরু হয়ে গেছে। কিন্তু কোন লাভ হবে না।
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্যাতিত এবং বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের বিনা বাক্যব্যয়ে এদেশে আশ্রয় দিয়েছেন। এদের সস্মানের সাথে নিজ দেশে ফেরত নেয়ার ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ব্যাপক সাড়া দিয়েছে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন পৃথিবীর শীর্ষ নেতৃত্বের একজন। যার সমস্ত চিন্তা চেতনা জনকল্যাণে নিবেদিত।
অর্থমন্ত্রী বলেন, দারিদ্র নিরসনে বর্তমান সরকার উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করেছে, এরপরও এখনো ৩ কোটিরও বেশি মানুষ দারিদ্রসীমার নিচে বাস করছে।
বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ করে উন্নয়নের রোল মডেল করেছেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আন্তর্জাতিক সেমিনারে গেলে সেখানে বিশ্ব নেতৃবৃন্দ প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে প্রশংসা করেন।
তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন, এই একটি কারণে আন্তর্জাতিক বিশ্বে সারা জীবন তাঁর নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। আমাদের বিশ্বাস জাতির পিতার সোনার বাংলা তাঁর কন্যা শেখ হাসিনার মাধ্যমে বাস্তবায়ন হবে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, মিয়ানমার থেকে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় প্রদানের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এর মাধ্যমে তিনি বিশ্ববাসীর কাছে এদেশের মানুষের উদার মানসিকতার পরিচয় তুলে ধরেছেন। বিশ্ব নেতারা তাঁর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েই নয়, তিনি তাাঁর কুটনৈতিক দুরদর্শিতা দেখিয়েছেন তাতে বিশ্বে আমাদের ভাবমুর্তি উজ্জল হয়েছে। যেখানে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি’র সম্মাননা ফিরিয়ে নিচ্ছে, সেখানে শেখ হাসিনাকে নতুন নতুন সম্মাননা দেয়া হচ্ছে। এতে বাংলাদেশ সম্মানিত হচ্ছে।
সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন, মিয়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, ‘প্রয়োজনে খাবার ভাগ করে খাবো’, মানবতার এই উজ্জল দৃষ্টান্ত কেবল শেখ হাসিনাই দেখাতে পারেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রজ্ঞা, দৃঢ়তা, যোগ্যতা, দুরদর্শীতা ও সততা বাংলাদেশকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে।
রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সরকারি দলের সদস্য ফারুক খান, আব্দুল মতিন খসরু, মাহবুব-উল আলম হানিফ, চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, অধ্যাপক আলী আশরাফ, ডা. দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, মো. তাজুল ইসলাম, ক্যাপ্টেন এবি তাজুল ইসলাম, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, পঙ্কজ নাথ, আব্দুল মান্নান, মীর মোশতাক আহমেদ রবি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, কাজী রোজী, উম্মে রাজিয়া কাজল, জয়া সেনগুপ্তা, এডভোকেট সানজিদা খানম, মনিরুল ইসলাম, ফজিলাতুন নেসা বাপ্পী, আশেক উল্লাহ রফিক, আব্দুল মতিন, সাবিনা আক্তার তুহিন, জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমাম, রুস্তম আলী ফরাজী, পীর ফজলুর রহমান, শামীম হায়দার চৌধুরী, সেলিম উদ্দিন, জাসদের সদস্য মইন উদ্দিন খান বাদল, শিরীন আক্তার, নাজমুল হক প্রধান, বিএনএফ সদস্য এসএম আবুল কালাম আজাদ।
বাসস/এমআর/এমএসএইচ/২৩৪০/বেউ/-আসচৌ