ড. কামাল হোসেন বেগম জিয়ার মতো কালো টাকা সাদা করেছিলেন : ড. হাছান মাহমুদ

598

ঢাকা, ২১ অক্টোবর, ২০১৮ (বাসস) : আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মতো গণফোরাম নেতা ড. কামাল হোসেনও কালো টাকা সাদা করেছিলেন।
আওয়ামী লীগের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ আজ বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে রবিবার ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
ড. হাছান বলেন, বেগম জিয়া ও ড. কামাল হোসেনের মধ্যে মিল আছে। তা হচ্ছে বেগম জিয়া এবং ড. কামাল হোসেন দু’জনই কালো টাকা সাদা করেছিলেন।
তিনি বলেন, সরকারকে অনুরোধ জানাবো ড. কামাল হোসেন সাহেবরা তাদের মক্কেলদের কাছ থেকে কত ফি নেন এবং সরকারের টেক্স অফিসে কত ডিক্লেয়ার করেন এর তদন্ত করে গোয়েন্দা প্রতিবেদনের ভিত্তিতে অনিয়ম পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হোক।
তিনি বলেন, যারা ন্যায় ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার কথা বলেন আর অন্যায়ের সাথে আঁতাত করেন এবং যারা দুর্নীতি মুক্ত সমাজের কথা বলেন তারা পরিপূর্ণ দুর্নীতি মুক্ত থাকবেন সেটাই জনগণের প্রত্যাশা।
সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ড. কামাল হোসেন কথায় কথায় বলেন তিনি নাকি বঙ্গবন্ধুর একনিষ্ঠ কর্মী ছিলেন, অথচ তিনি আজকে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী, শেখ রাসেলের হত্যাকারী, সুকান্তবাবুর হত্যাকারী এবং ৭৫’এ নারী ও শিশু হত্যাকারীদের ত্রাণকর্তা হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন। এমনকি তিনি দুর্নীতি মুক্ত সমাজ গঠনের কথা বলেন যাদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ পরপর পাঁচবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তাদের নেতৃত্ব গ্রহণ করেন এবং দুর্নীতির দায়ে শাস্তিপ্রাপ্ত বেগম জিয়ার মুক্তি চান।
তিনি বলেন, তিনি জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে কথা বলেন অথচ জঙ্গীদের পাশে বসে তিনি সাত দফার দাবি দিয়ে বললেন জঙ্গীবাদ দমন করতে হবে। এটি দেশের জনগণের সাথে মশকরা ও ভাওতাবাজী আর ছাড়া কিছু নয়। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী বিএনপি জামাত এবং খন্দকার মুস্তাক গংদের সহযোগি হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে ড. কামাল হোসেন, মাহমুদুর রহমান মান্না, আ স ম রব গং।
জাতীয় ঐক্যজোটের হাকঢাক খালি কলসি বাজাঁর মতো মন্তব্য করে তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেন, মাহমুদুর রহমান মান্না, আ স ম রবসহ বিএনপির ভাড়া করা এসব নেতাদের হাকঢাক বর্ষাকালের কোলাব্যাঙ ডাকার মতো। সুতরাং এই সব নেতাদের ভাড়া করে বিএনপি পার পাবে না।
ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদসহ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।