পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেলে যুক্তরাষ্ট্রকে অনুতাপ করতে হবে : ইরান

315

তেহরান, ৭ মে, ২০১৮ (বাসস ডেস্ক) : ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি সতর্ক করে বলেছেন, ইরানের সঙ্গে করা পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেলে যুক্তরাষ্ট্রকে ‘পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে’ অনেক বেশি অনুতাপে ভুগতে হবে।
খবর এএফপি’র।
এদিকে সোমবার ট্রাম্প প্রশাসনের কর্মর্কতাদের সঙ্গে বৈঠককালে ইরানের সঙ্গে করা পরমাণু চুক্তিটি রক্ষার জন্য ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বোরিস জনসন জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এর মতে ইরানের সঙ্গে তার মিত্রদের করা এই পরমাণু চুক্তি ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে চুক্তি। চুক্তির ‘ত্রুটিপূর্ণ শর্তগুলো পরিবর্তন বা বালিত না করা হলে’ যুক্তরাষ্ট্র চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাবে বলে ট্রাম্প তার ইউরোপীয় মিত্রদের হুমকি দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, ১২ মে চুক্তিটি নবায়ন করতে হবে। খবব এএফপি’র।
তার দাবি মানা না হলে তিনি ইরানের ওপর আবার অবরোধ আরোপেরও ঘোষণা দিয়েছেন।
রুহানি রোববার ইরানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল থেকে দেয়া এক টেলিভিশনে ভাষণে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র যদি পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যায়, তবে আপনারা দেশটিকে এমনভাবে অনুতাপে ভুগতে দেখবেন যা এর আগে ইতিহাসে কেউ কখনো করেনি।’
তিনি আরো বলেন, ‘ট্রাম্প ও ইসরাইল সরকারের জানা উচিত যে আমাদের দেশের জনগণ ঐক্যবদ্ধ।’
ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আজ ইরানের ডানপন্থী, বামপন্থী, রক্ষণশীল, সংস্কারপন্থী ও উদারপন্থীসহ সকল রাজনৈতিক দল ঐক্যবদ্ধ রয়েছে।’
২০১৫ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নেতৃত্বে ইরানের সঙ্গে ব্রিটেন, চীন, জার্মানী, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের পরমাণু চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
রুহানি বলেন, ‘আমরা আমাদের প্রতিশ্রুতিকে সম্মান করি। তবে একই সাথে আমরা বিশ্বকে জানিয়ে দিতে চাই যে আমাদের অস্ত্র ও আমাদের প্রতিরক্ষার ব্যাপারে আমরা কারো সঙ্গে সমঝোতা করব না।’
ইরানের প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, তিনি তার দেশের আঞ্চলিক ভূমিকার ব্যাপারে খোলাখুলি আলোচনায় ইচ্ছুক। তিনি ‘সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে’ লড়াই বন্ধ করবেন না।
ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আঞ্চলিক সুরক্ষার স্বার্থে আমরা গোটা বিশ্বের সঙ্গে আলোচনা করতে চাই। আমরা নতুন ডায়েশ (ইসলামিক স্টেট) সৃষ্টি করতে দিব না।’