বাজিস-১১ : বঙ্গোপসাগরে নিখোঁজ ২০৫ জেলের মধ্যে ১১৩ জন ফিরে এসেছে

547

বাজিস-১১
বঙ্গোপসাগর-জেলে
বঙ্গোপসাগরে নিখোঁজ ২০৫ জেলের মধ্যে ১১৩ জন ফিরে এসেছে
বরগুনা, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : বঙ্গোপসাগরের গভীরে মাছ ধরারত অবস্থায় ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলার ডুবিতে নিখোঁজ ২৫০ জেলের মধ্যে ১১৩ জেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৫ ট্রলারসহ ৮৭ জেলের সন্ধান মেলেনি। শনিবার দুপুরের পর উদ্ধার হওয়া জেলেরা পাথরঘাটা বিএফডিসি ঘাটে এলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়।
বৃহ¯পতিবার থেকে শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত গভীর সমুদ্রে ফেয়ারওয়েবয়া, নারিকেলবাড়িয়া, দুবলাসহ একাধিক জায়গায় ১৫টি মাছধরা ট্রলার ডুবে যায়। এখন পর্যন্ত নিখোঁজ ট্রলারগুলোর মধ্যে পাথরঘাটার জসিমের মালিকানা এফবি মা ট্রলারের ১৭ জেলে, আলম মোল্লার মালিকানা এফবি মহসিন আউলিয়া-৫ ট্রলারের ২২ জেলে, পনু আকনের মালিকানা এফবি সুজনের ১৭, হারুন হাওলাদারের মালিকানা এফবি তানজিলা ট্রলারের ১১, ছগির পহলানের মালিকানা এফবি আরমান ট্রলারের ৪ জন ও মহিপুরের জাকিরের মালিকানা এফবি জাহানারা ট্রলারে ১৬ জন জেলে রয়েছেন। জেলেরা জানিয়েছেন, এফবি জাহানারা ট্রলারের ১৬ জন জেলের মধ্যে ১৫ জনকে ভারতীয় জলসীমায় ভাসতে দেখে ওই দেশের জেলেরা তাদের উদ্ধার করে কাকদ্বীপের পার্থপ্রতিম থানায় হস্তান্তর করেছে বলে ওই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রঞ্জন মূল বাংলাদেশী জেলেদের নিশ্চিত করেছেন। এসআই রঞ্জন মূলের তত্বাবধায়নে পার্থপ্রতিম থানার সরকারি হাসপাতালে ওই জেলেদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে ফিরে আসা জেলেরা আরও জানান।
বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানিয়েছেন, উদ্ধার হওয়া ১১৩ জন জেলে শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকায় চিকিৎসা দিয়ে তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে এখনো নিখোঁজ জেলেদের কোন সন্ধান না পাওয়ায় তাদের বাড়িতে চলছে আহাজারি।
কোস্টগার্ডের পশ্চিম জোনের অপারেশন অফিসার লে. মাহমুদ আলী জানান, সুন্দরবনের আউটপোস্টের সব ক্যা¤েপর সদস্যরা উদ্ধার অভিযানে নেমে পড়েছেন। উদ্ধার অভিযান অব্যহত রয়েছে।
বাসস/সংবাদদাতা/২০২১/মরপা