বাসস ক্রীড়া-১৬ : পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ ‘কঠিন কিন্তু স্বচ্ছ’ খেলার অঙ্গীকার কেলেঙ্কারিতে জর্জরিত অস্ট্রেলিয়া

228

বাসস ক্রীড়া-১৬
ক্রিকেট-অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান
পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ ‘কঠিন কিন্তু স্বচ্ছ’ খেলার অঙ্গীকার কেলেঙ্কারিতে জর্জরিত অস্ট্রেলিয়া
সিডনি ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ (বাসস/এএফপি) : পাকিস্তানের বিপক্ষে আসন্ন সিরিজ ‘কঠিন কিন্তু স্বচ্ছ’ হবে বলে মন্তব্য করেছেন কেলেঙ্কারিতে আক্রান্ত অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অধিনায়ক টিম পাইন। বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জর্জরিত দলটি ওই ঘটনার পর এই প্রথম টেস্ট সিরিজে অংশ নিতে যাচ্ছে। তবে দলটির বিরুদ্ধে নতুন করে ভিন্ন অভিযোগ তুলেছেন ইংল্যান্ড দলের ক্রিকেটার মঈন আলী।
চলতি বছরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকায় কেলেঙ্কারিতে জড়ানোর পর নতুন করে প্রথম টেস্ট সিরিজকে সামনে রেখে বুধবার সংযুৃক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে াস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। বল টেম্পারিংয়ের ওই ঘটনায় ১২ মাসের জন্য নিষিদ্ধ হন অসি তারকা স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। সেই সঙ্গে সমর্থকদের রোষানলে পড়ে টিম অস্ট্রেলিয়া।
আসন্ন সিরিজকে সামনে রেখে অসি দলে ঠাই পেয়েছে এখনো পর্যন্ত আন্তর্জাতিক অভিষেক না পাওয়া পাঁচ ক্রিকেটার। সিরিজে তারা সমীহ জাগানিয়া সংস্কৃতি চালু এবং যে কোন উপায়ে জয় পাবার মনাষিকতা থেকে বেরিয়ে এমন মানষিকতা ত্যাগ করতে চায়। যে কারণে অস্ট্রেলিয়া বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে পতিত হয়েছে।
সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার আগে পাইন সাংবাদিকদের বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া সব সময় কঠিন এবং স্বচ্ছ খেলার পথ ধরতে চায়। আসন্ন সিরিজেও এর ব্যত্যয় ঘটবে না। যেখানেই খেলতে যাই না কেন, অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের ওপর সবসময় ভক্তদের নজর থাকে। সুতরাং, এখানেও আলাদা কিছু থাকছেন না। এই দলটির মধ্যে তাদের প্রত্যাশা এবং মান বজায় রাখার বিষয়ে একটি স্বচ্ছ লক্ষ্য রয়েছে। আমরা অবশ্যই দলকে সমুন্নত রাখবো।’
দক্ষিণ আফ্রিকায় কেলেঙ্কারি সামাল দিতে পরিবর্তন হয় অসি দলের কোচেরও। ডেরেন লেহম্যানের পরিবর্তিত হিসেবে যোগ দেন জাস্টিন ল্যাঙ্গার। কিন্তু আসন্ন সিরিজের আগে ফের অস্ট্রিলিয়া দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন ইংলিশ ক্রিকেটার মঈন আলী। যদিও এই বির্তক মাঠে নয়। মাঠের বাইরে। নিজের জীবনিতে মঈন লিখেছেন ২০১৫ সালে এ্যাসেজ সিরিজে তাকে ‘ওসামা’ বলে ডেকেছিলেন একজন অসি ক্রিকেটার।
কার্ডিফে এ্যাসেজের অভিষেক ম্যাচের শেষ দিকে অজ্ঞাত একজন অসি ক্রিকেটার মুসলিম ধর্মাবলম্বী এই ইংলিশ ক্রিকেটারকে সন্ত্রাসী নেতা ওসামা বিন লাদেনের সঙ্গে তুলনা করে ওই নামে ডেকেছেন।
বিষয়টি নিয়ে অস্ট্রেলিয় ক্রিকেট তদন্ত নেমেছে জানিয়ে বলেছে এ ধরনের মন্তব্য ‘অগ্রহণযোগ্য’।
বাসস/এএফপি/এমএইচসি/১৮৩০/-স্বব