এক মাস লড়াইয়ের পর করোনার কাছে হার মানলেন মিলখা সিং

101

নয়া দিল্লি, ১৯ জুন, ২০২১ (বাসস) : এক মাস লড়াইয়ের পর প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কাছে হার মানলেন উপমহাদেশের কিংবদন্তি গতিমানব ভারতের মিলখা সিং। গতকাল রাতে ভারতের চন্ডিগড়ে একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৯১ বছর।
মিলখা সিংয়ের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন তাঁর ছেলে গল্ফার জীব মিলখা সিং। মৃত্যুকালে পুত্র জীব মিলখা সিং ও তিন মেয়ে রেখে গেছেন এই দৌড়বিদ।
এ সপ্তাহের শুরুতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান মিলখা সিংএর স্ত্রী নির্মলা কাউর। স্ত্রীকে হারানোর পর করোনায় থেমে গেলেন ‘দ্য ফ্লাইং সিং’ নামে পরিচিত মিলখা।
গত ২০ মে করোনায় আক্রান্ত হন মিলখা। বাড়ির এক পরিচারকের মাধ্যমে সংক্রমিত হন মিলখা এবং তাঁর স্ত্রী। চার দিন পরে ২৪ মে মোহালির হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। ৩০ মে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান তিনি।
কিন্তু ৩ জুন শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাওয়ায় নেহেরু হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয় মিলখাকে। গত বৃহস্পতিবার করোনার পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে তার। করোনার আইসিইউ থেকে সাধারণ আইসিইউ-তে স্থানান্তরিত করা হয় তাকে। কিন্তু হঠাৎ করে অক্সিজেন লেভেল কমে যাওয়ায় তাঁকে আবার হাসপাতালে যেতে হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত চিকিৎসকদের সব চেষ্টাকে ব্যর্থ করে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান ভারতের সাবেক এই স্প্রিন্টার।
এখন পাকিস্তানের অংশ গোবিন্দপুরাতে জন্ম নেওয়া মিলখা সিং প্রথম ভারতীয় অ্যাথেলট হিসেবে ১৯৫৮ সালে ৪শ মিটারে কমনওয়েলথ গেমসের স্বর্ণ জিতেন। কার্ডিফে ঐ প্রতিযোগিতায় দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যালকম স্পেনসকে হারান তিনি। স্বর্ণ জিততে ৪৬ দশমিক ৬ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করেন মিলখা।
১৯৫৮ সালে এশিয়ান গেমসে ২০০ ও ৪০০ মিটার এবং ১৯৬২ সালে ৪০০ মিটার ও ৪ গুণিতক ৪০০ মিটার রিলেতে স্বর্ণ জিতেন মিলখা। তবে মিলখার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ঘটনা ১৯৬০ সালে রোম অলিম্পিকে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করে চতুর্থ হন তিনি। অল্পের জন্য পদক পাননি এই দৌড়বিদ। মোট তিনটি অলিম্পিক গেমসে অংশ নেন মিলখা। ১৯৫৯ সালে পদ্মশ্রী সম্মান দেওয়া হয় তাঁকে।
ভারতের হয়ে এশিয়ান গেমসে একাধিক স্বর্ণ জয় করা এই কিংবদন্তী দৌড়বিদের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ ক্রীড়া, বলিউড ও রাজনীতির জগত। মিলখা সিংয়ের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে টুইট করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। টুইটে তিনি লিখেন, ‘কিছুদিন আগেই মিল্কা সিংয়ের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। কিন্তু তখন জানতাম না যে, এটিই আমাদের শেষ কথা। তাকে দেখে অনেক অ্যাথলেট অনুপ্রাণিত হয়েছেন। তার পরিবারের সদস্য ও গুণগ্রাহীদের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা রইলো।’
ভারতের সাবেক মাস্টার ব্লাস্টার ব্যাটসম্যান শচীনে টেন্ডুলকারও সমবেদনা জানিয়েছেন। টুইটারে টেন্ডুলকার লিখেছেন, ‘শান্তিতে থাকুন উড়ন্ত শিখ মিলখা সিংহ। আপনার মৃত্যু প্রত্যেক ভারতবাসীর মনে ছাপ রেখে গেল। তবে আগামী অনেকগুলো প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ করবেন আপনি।’
ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী টুইটারে লিখেছেন, ‘খবরটা পেয়ে আমি অত্যন্ত মর্মাহত। তার আত্মার শান্তি কামনা করি। ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রীড়াবিদ ছিলেন তিনি। আপনি ভারতের তরুণদের খেলোয়াড় হওয়ার স্বপ্ন দেখিয়েছেন। আপনাকে খুব কাছ থেকে জানার সৌভাগ্য আমার হয়েছে।’
ইংল্যান্ডে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলতে যাওয়া ভারতের পেসার জসপ্রিত বুমরাহও টুইট করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘একজন হিরো, একজন অনুপ্রেরণা, আগামী প্রজন্মও বুঝতে পারবে তাঁর অস্তিত্ব। ভাল থাকবেন মিলখা সিং।’
মিলখার মৃত্যুতে শুধু রাজনীতি ও ক্রীড়া জগত নয়, শোকের ছায়া বলিউডেও। বলিউড তারকা শাহরুখ খান টুইট করে লিখেছেন, ‘উড়ন্ত শিখ আর আমাদের মধ্যে নেই, তবুও তাঁর অস্তিত্ব অস্বীকার করা যাবে না। আমার অনুপ্রেরণা, লক্ষ মানুষের অনুপ্রেরণা। ভাল থাকবেন মিলখা স্যার।’
অমিতাভ বচ্চন লিখেছেন, ‘গভীরভাবে শোকাহত। ভারতের গর্ব, দারুণ দৌড়বিদ, আরও ভাল মানুষ, মিলখা সিং চলে গেলেন।’
চন্ডিগড়ে আজ শনিবার বিকেল ৫টায় মিলখা সিংয়ের শেষকৃত্য সম্পন্ন হবার কথা রয়েছে।