বাসস দেশ-৫ : স্ত্রী হত্যার দায়ে সিলেট কারাগারে স্বামীর মৃত্যুদন্ড কার্যকর

55

বাসস দেশ-৫
মৃত্যুদন্ড-কার্যকর
স্ত্রী হত্যার দায়ে সিলেট কারাগারে স্বামীর মৃত্যুদন্ড কার্যকর
সিলেট, ১৮ জুন, ২০২১ (বাসস) : স্ত্রী হত্যার দায়ে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে স্বামীর মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছে। দেশের সর্বোচ্চ আদালতের দেওয়া মৃত্যুদন্ডের এই রায় বৃহস্পতিবার রাত ১১ টায় কার্যকর করা হয়।
মৃত্যুদন্ড কার্যকর হওয়া ব্যাক্তির নাম মো. সিরাজুল ইসলাম সিরাজ (৫৫)। তিনি হবিগঞ্জ জেলার সদর থানার রাজনগর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে।
সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মো. মুজিবুর রহমান গত রাতেই বাসস’কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সিলেটের বাদাঘাট এলাকায় স্থানান্তরিত সিলেট কেন্দ্রীয় নতুন কারাগারে এটি প্রথম কোন ফাঁসির রায় কার্যকর করা হলো।
ফাঁসি কার্যকর কালে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, সিলেটের ডিআইজি প্রিজন মোঃ কামাল হোসেন, সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিসি) উত্তর আজবাহার আলী শেখ, সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল, সিলেটের সিনিয়র জেল সুপার মোহাম্মাদ মঞ্জুর হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
রায় কার্যকর হওয়ার পর কারাগারের যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে রাত ১২ টার সময় ফাঁসির দন্ডাদেশ প্রাপ্ত সিরাজের লাশ তার নিকটাত্মীয়দের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে লাশটি তারা একটি এম্বুলেন্সে করে নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে করে রওয়ানা করেন।
এ সময় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে ও কারাগারের আশপাশ এলাকায় অতিরিক্ত নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।
সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্র জানায়, ২০০৪ সালের মার্চ মাসের শুরুতে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত সিরাজুল ইসলাম সিরাজ তার স্ত্রী সাহিদা আক্তার সাইদাকে নিজ বাড়িতে শাবল ও ছুরি দিয়ে নিজ হাতে আঘাত করে হত্যা করেন। পরবর্তীতে নিহতের ভাই বাদী হয়ে হবিগঞ্জ সদর থানায় ২০০৪ সালের ৭ মার্চ সাইদার স্বামী সিরাজকে অভিযুক্ত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় দীর্ঘ তদন্ত ও যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিগত ২০০৭ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি সিলেটের বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক অভিযুক্ত আসামীকে ৩০২ দন্ডবিধিতে মৃত্যুদন্ডাদেশ ও নগদ ১০ হাজার টাকা জরিমানা দিয়ে এ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করেন।
পরবর্তীতে এর বিরুদ্ধে দন্ডপ্রাপ্ত আসামী হাইকোর্টে আপিল দায়ের করেন। হাইকোর্ট আপিল শুনানী শেষে বিগত ২০১২ সালের ১ আগস্ট তার আপীল নিস্পত্তিক্রমে সিলেটের আগের রায় বহাল রাখেন। পরবর্তীতে বন্দীর পক্ষে সুপ্রিমকোর্ট আপিল বিভাগ ঢাকা সমীপে একখানা জেল পিটিশন দাখিল করেন। পরবর্তীতে তার দায়ের করা আপিল পিটিশন শুনানী শেষে সুপ্রিমকোর্ট বিগত ২০২০ সালের ১৪ অক্টোবর আপিল খারিজ করে পূর্ববর্তী মৃত্যুদন্ডের রায় বহাল রাখেন।
পরবর্তীতে কারাবন্দীর পক্ষে সর্বশেষ মহামান্য রাষ্ট্রপতি বরাবরে চলতি বছরের ২৫ মে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রাণভিক্ষার আবেদন জানানো হয়। এতে মহামান্য রাষ্ট্রপতি কর্তৃক প্রাণভিক্ষার আবেদন নামঞ্জুর হওয়ায় ১৭ জুন দিবাগত রাত ১১ টায় সিরাজুল ইসলাম সিরাজের মৃত্যদন্ড কার্যকর করা হয়।
বাসস/সংবাদদাতা/১১৫২/-এমএন