স্বেচ্ছায় রক্তদানকে সামাজিক আন্দোলনে পরিণত করতে হবে : বিশ্ব রক্তদাতা দিবসে বক্তারা

94

ঢাকা, ১৪ জুন, ২০২১ (বাসস) : স্বেচ্ছায় রক্তদানকে একটি সামাজিক আন্দোলনে পরিণত করতে হবে যাতে দেশে শতভাগ রক্তদান নিশ্চিত করা যায়।
আজ বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এ কথা বলেন।
তারা বলেন, দেশে বছরে প্রায় ৬ লাখের বেশী ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন হয়। ২০০০ সাল থেকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিরাপদ রক্ত পরিসঞ্চালন কর্মসূচি শুরু হয়। এর আওতায় সারাদেশে ২০৮টি রক্ত পরিসঞ্চালন কেন্দ্র স্থাপন করা হয়। এ সকল কেন্দ্রে রক্তদাতাদের এইডস, হেপাটাইটিস-বি ও সি, সিফিলিস এবং ম্যালেরিয়ার পরীক্ষার ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।
বক্তারা আরো বলেন, এছাড়া ৬৬টি বেসরকারি হাসপাতাল এবং ব্লাড ব্যাংকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইসেন্স সংগ্রহ করে রক্ত পরিসঞ্চালন ব্যবস্থা পরিচালনা করা হচ্ছে। দেশে বছরে ১৪ লাখের বেশি ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন হয়। বর্তমানে সংগৃহীত রক্তের প্রায় ৬৯ শতাংশ সংগ্রহ করা হয় আত্মীয়-স্বজন থেকে এবং ৩১ শতাংশ পাওয়া যায় স্বেচ্ছায় রক্তদাতা থেকে।
স্বেচ্ছায় রক্তদাতা সংখ্যা গত দশ বছরে শতকরা ১০ ভাগ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৩১ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। কিন্তু মুমূর্ষু রোগীর জন্য অনেক সময় রক্ত দেওয়ার কোনো আত্মীয়-স্বজন থাকে না বলেও উল্লেখ করেন তারা।
বিএসএমএমইউ সূত্র জানায়, প্রতিবছর বিশ্বে ১০.৭ কোটি ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করা হয়। বিশ্বের প্রায় ৬২টি দেশে শতকরা শতভাগ স্বেচ্ছায় রক্ত সংগ্রহ হয়। উন্নত বিশ্বে প্রতি এক হাজার জনের মধ্যে ৩৬ জন স্বেচ্ছায় রক্তদান করে; যা উন্নয়নশীল দেশে ৩ জনেরও কম। প্রতি বছর বিশ্বে প্রায় ৫ লাখ মহিলা প্রসব-জনিত কারণে মারা যায় । এরমধ্যে দেড় লক্ষ মারা যায় রক্তের অভাবে। দুর্ঘটনা জনিত কারণে ৫-২৯ বছরের মানুষ বেশী মারা যায়, যেখানে রক্তের প্রয়োজন অবধারিত। কোনো দেশের মোট জনগোষ্ঠীর মাত্র দুই শতাংশ মানুষ যদি বছরে মাত্র একবার রক্তদান করে,তাহলে দেশের রক্তের অভাব থাকে না বলেও জানা যায়।
এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগের উদ্যোগে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচীর উদ্বোধনসহ নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদযাপিত হয়েছে। সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগে এ উপলক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন বিএসএমএমইউয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো: শারফুদ্দিন আহমেদ।
দেশের সকল সুস্থ মানুষকে স্বেচ্ছায় রক্তদানে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে উপাচার্য বলেন, রক্তদানের মাধ্যমে শরীরের কোনো ক্ষতি হয় না বরং শরীরের ইমিউনিটি বৃদ্ধি পায়।
অন্যদিকে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনা সম্পর্কিত মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাঙ্গাস ম্যানেজমেন্ট গাইডলাইনের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে আজ সোমবার।