বাসস দেশ-৩২ : ভিটামিন ‘এ প্লাস’ ক্যাম্পেইন উপলক্ষে বিভিন্ন জেলায় কর্মশালা ও সংবাদ সম্মেলন

129

বাসস দেশ-৩২
ভিটামিন ‘এ’-ক্যাম্পেইন
ভিটামিন ‘এ প্লাস’ ক্যাম্পেইন উপলক্ষে বিভিন্ন জেলায় কর্মশালা ও সংবাদ সম্মেলন
ঢাকা, ২ জুন ২০২১ (বাসস): জাতীয় ভিটামিন ‘এ প্লাস’ ক্যাম্পেইন উপলক্ষে আজ বুধবার দেশের বিভিন্ন জেলায় কর্মশালা ও সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বাসস-এর মাগুরা সংবাদদাতা জানান, জেলায় জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনে এবার একলাখ ১২ হাজার ৩৯১জন শিশুকে ‘ভিটামিন এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। আজ বুধবার দুপুরে সিভিল সার্জনের সম্মেলনকক্ষে অবহিতকরণ সভায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।
সিভিল সার্জন ডাক্তার শহীদুল্লাহ দেওয়ান জানান, এবার মাগুরা সদর, শ্রীপুর, মহম্মদপুর, শালিখা উপজেলা ও পৌরসভায় ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ১২ হাজার ৩৭১ জন শিশুকে নীল রঙের ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওনো হবে এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী একলাখ ২০জন শিশুকে লাল ক্যাপসুল খাওনো হবে। এ কর্মসূচি সফল করতে জেলার ৯৩৯টি ইপিআই কেন্দ্রে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ২১২ জন স্বাস্থ্যকর্মী এবং ১ হাজার ৮৭৮ জন স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত থাকবেন।
বাসস-এর মেহেরপুর সংবাদদাদা জানান, জেলায় আজ বুধবার দুপুরে সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে জাতীয় ভিটামিন ‘এ প্লাস’ ক্যাম্পেইন উদযাপন উপলক্ষে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সিভিল সার্জন ডা. নাসির উদ্দীনের সভাপতিত্বে কর্মশালায় মূলবক্তব্য উপস্থাপন করেন মেডিক্যাল অফিসার ডা.ফয়সাল হারুন।
সিভিল সার্জন জানান, জেলায় ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী আটহাজার ১৪২ জন শিশুকে নীল রঙের এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৫৯ হাজার ৭৭২ জন শিশুকে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
এসময় মেহেরপুর জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তোজাম্মেল আযম ও সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব চান্দু-সহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।
বাসস-এর ঝালকাঠি সংবাদদাতা জানান, জেলায় এবছর একলাখেরও বেশি শিশুকে ভিটামিন ‘এ প্লাস’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। আজ বুধবার বেলা ১১টায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ে জাতীয় ভিটমিন ‘এ প্লাস’ ক্যাম্পেইন উপলক্ষে আয়োজিত এক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় এসব তথ্য জানানো হয়।
ঝালকাঠির সিভিল সার্জন ডা. রতন কুমার ঢালীর সভাপতিত্বে কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন জেলা তথ্য কর্মকর্তা মো. আহসান কবির ও ঝালকাঠি প্রেসক্লাবের সভাপতি চিত্তরঞ্জন দত্ত প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
সিভিল সার্জন জানান, এ বছর ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ১২ হাজার আটশ’ শিশুকে একটি করে নীল রঙের এবং ১২ থেকে ৫৯ মাসের ৯০ হাজার পাঁচশ’ শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত জেলার ৩২টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভার ৮২২টি কেন্দ্রে এ কার্যক্রম চলবে। ক্যাম্পেইন চলাকালে স্বাস্থ্যকর্মীসহ দুই হাজার ১০জন স্বেচ্ছাসেবী কাজ করবেন। তিনি শিশুদের অবশ্যই ভরাপেটে ক্যাপসুল খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।
বাসস-এর জয়পুরহাট সংবাদদাতা জানান, জেলায় এবার একলাখ ৩৮ হাজার সাতশ’ শিশুকে ভিটামিন ‘এ প্লাস’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।এ উপলক্ষে আজ জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলনকক্ষে অবহিতকরণ ও পরিকল্পনাসভার আয়োজন করা হয়।সিভিল সার্জন ডা. ওয়াজেদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. শরীফুল ইসলাম।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ৬-১১ মাস বয়সি শিশুদের নীল রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২-৫৯ মাস বয়সি শিশুদের লাল রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। জেলায় ৬-১১মাস বয়সের ১২ হাজার দুইশ’ জন শিশুকে ও ১২-৫৯ মাস বয়সের একলাখ ২৬ হাজার পাঁচশ’ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো হবে।
বাসস/এনডি/সংবাদদাতা/২০০৫/এমকে