বাসস দেশ-৪৩ : তারা ষড়যন্ত্র করে কিছুই করতে পারবে না : মতিয়া চৌধুরী

119

বাসস দেশ-৪৩
স্বদেশ প্রত্যাবর্তন-আলোচনা
তারা ষড়যন্ত্র করে কিছুই করতে পারবে না : মতিয়া চৌধুরী
ঢাকা, ১৭ মে, ২০২১ (বাসস) : আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, আজকে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। তার প্রমাণ আমরা সবকিছুতেই পাই। কিন্তু তারা ষড়যন্ত্র করে কিছুই করতে পারবে না। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা অবশ্যই সুর্যালোকিত দিনের দিকে এগিয়ে যাবো।
সোমবার বিকেলে রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফীর সভাপতিত্বে এ আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী দলের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্য ও স¤প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া এবং মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির।
মতিয়া চৌধুরী বলেন, বাঙালিকে তিনি তার সুর্যালোকের দিগন্তে নিয়ে যাবেন। অভীষ্ঠ লক্ষ্যে নিয়ে যাবেন। বাংলাদেশ আজকে নিম্ম আয়ের দেশ থেকে মধ্য আয়ের দেশে পৌঁছে গেছে। তার সুযোগ্য নেতৃত্বে আমরা উচ্চ আয়ের দেশে পরিণত হবো। সেই শক্তির পাথেয় বঙ্গবন্ধুর বাণীকে সম্বল করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা অবশ্যই সুর্যালোকিত দিনের দিকে এগিয়ে যাবো।
মতিয়া চৌধুরী বলেন, ২০১৩ সালে মতিঝিলের ওই শাপলা চত্তরে আড়াই শ গরু বেধে রেখেছিল তাদেরকে খাওয়ানোর এবং বাংলাদেশকে দখল করার জন্য। আড়াইশ গরুর জীবন বেঁচে গেছে। তাদের গলায় ছুরি পড়ে নাই। আর ওইসব ষড়যন্ত্র নসাৎ হয়ে গেছে। ইদানিং তারা যেসব ষড়যন্ত্র করছে, এই ষড়যন্ত্রের কুয়াশাকেও ভেদ করে অন্ধকারকে অতিক্রম করে আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সুর্যালোকের আলোর দিকে অবশ্যই পৌঁছাব। সেই লক্ষ্যে আওয়ামী লীগের সৈনিকেরা এবং আগামী দিনের প্রজন্মরা বিশে^র দরবারে এগিয়ে যাবে। বিশে^র বুকে বাংলাদেশ সম্মানের দরবারে অধিষ্ঠিত হবেই হবে।
আওয়ামীলীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান বলেন, শেখ হাসিনা জীবনে ২১ বার মৃত্যুকে তুচ্ছ মনে করে এই জাতিকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। আজকে করোনার সময় একাই লড়াই করে একটি দেশকে কি করে নেতৃত্ব দিতে হয়, কি করে দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হয় পৃথিবীর নেতৃত্বকে তিনি চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছেন।
সরকার বিরোধী ষড়যন্ত্রকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ওরা শেখ হাসিনাকে ভয় দেখাতে চায়। শেখ হাসিনা ভেঙ্গে যাবে কিন্তু মচকাবে না।
আব্দুর রহমান বলেন, রমজানে লকডাউনে শেখ হাসিনার ডাকে আওয়ামী লীগ যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ঘরে ঘরে ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে।
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও স¤প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, করোনা মহামারির মধ্যে প্রায় সবদেশে যেখানে অর্থনীতি সংকুচিত হয়েছে, মাথাপিছু আয় কমেছে, সেখানে গত বছর বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় বেড়েছে। মাথাপিছু আয় ২ হাজার ২২৭ ডলারে উন্নীত হয়েছে, যা আমাদের জাতির জন্য আরেকটি অর্জন।
আয়তনের দিক দিয়ে পৃথিবীতে ৯১তম বাংলাদেশ আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বে ধান উৎপাদনে তৃতীয়, মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে চতুর্থ, আলু উৎপাদনে সপ্তম, সবজি উৎপাদনে চতুর্থ বলে উল্লেখ করেন ড. হাছান।
তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের বিচার ও রায় কার্যকর হয়েছে এবং যুদ্ধাপরাধের বিচার হয়েছে ও চলমান আছে। তার হাত ধরেই ক্যান্টনমেন্টে বন্দি গণতন্ত্র মুক্তি পেয়েছে, দেশের মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বারবার মৃত্যুর উপত্যকা থেকে ফিরে এসে শেখ হাসিনা কখনো বিচলিত হননি, দ্বিধান্বিত হননি, বাংলাদেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামের কাফেলাকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন।’
বাসস/এএসজি/এমএমবি/২৩২২/এবিএইচ