বাসস দেশ-২২ : ঢাকাবাসীকে দুই মেয়রের ঈদ শুভেচ্ছা

37

বাসস দেশ-২২
মেয়র-শুভেচ্ছা
ঢাকাবাসীকে দুই মেয়রের ঈদ শুভেচ্ছা
ঢাকা, ১৪ মে, ২০২১ (বাসস) : ঢাকা মহানগরবাসীকে ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।
পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর এবং দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্বভার গ্রহণের বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে নগরবাসীর প্রতি শুভেচ্ছা জানিয়ে মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম আজ নগরবাসীর উদ্দেশ্য প্রদত্ত এক বক্তৃতায় সিটি কর্পোরেশনবাসীসহ সমগ্র মুসলিম উম্মাহর শান্তি, সম্প্রীতি ও সম্বৃদ্ধি কামনা করেন।
মেয়র নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে তাকে মনোনয়ন দেয়ায় বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি তিনি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার জন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনবাসীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।
বক্তৃতায় তিনি মেয়র হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণের পর থেকে অদ্যাবধি নগরবাসীর কল্যাণে গৃহীত ও বাস্তবায়িত জনকল্যাণমূলক বিভিন্ন কর্মকান্ডের বিস্তারিত তুলে ধরেন এবং অতীতের ন্যায় আগামী দিনগুলোতেও সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।
এদিকে এক শুভেচ্ছা বার্তায় ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, করোনাভাইরাসের ফলে সৃষ্ট বৈশ্বিক মহামারির এই সংকটকালে মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার পর বছর ঘুরে আবারও আমাদের মাঝে ফিরে এলো সাম্য-শান্তি-সম্প্রীতির সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর। বিশ্বব্যাপী অদৃশ্য এই ভাইরাসের থাবায় মানবজাতি আজ বিপর্যস্ত, গভীর সংকটে নিপতিত। তাই ঈদ-উল-ফিতর এর এবারকার আয়োজনে আমাদেরকে করোনা মহামারিজনিত সংকট বিবেচনায় রেখে ঈদের আনন্দ-উৎসবে শামিল হতে হবে।
তিনি বলেন, ‘রমজানের শিক্ষা হলো ধৈর্য, সংযম ও সহনশীলতা। এই ঈদে আমরা সবাই রমজানের সেই তাৎপর্য পরিপূর্ণভাবে ধারণ করে ঈদ আনন্দে ঘরে থাকব। যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে পরিবারের সদস্যদের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করব। বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স্বজনদের সাথে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সর্বোত্তম ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা ঈদ আনন্দ উদযাপন করব, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে আমরা নিজেকে ও পরিবারের সদস্যদেরকে সুরক্ষিত রাখব এবং দেশ ও জাতির কল্যাণে নাগরিক দায়িত্ব পালন করব।’
মেয়র বলেন, ‘আমাদেরকে মনে রাখতে হবে, জীবনের জন্যই আনন্দ। উৎসব জীবনেরই অনুষঙ্গ। একমাত্র আমাদের সচেতনতা ও স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের মাধ্যমেই করোনাকে নিয়ন্ত্রিত ও পরাজিত করতে পারি, আমরা পারি সুরক্ষিত থাকতে।’
তিনি বলেন, এই ঈদে সবাই মহান আল্লাহপাকের কাছে কায়মনে প্রার্থনা করবো – দূর হোক করোনার থাবা, চলুক মানবজাতির জয়রথ। সকলের সম্মিলিত আত্মত্যাগ ও সংযম প্রদর্শনের বিনিময়ে আগামীদিনে আমাদের মাঝে ফিরে আসুক ঈদ আনন্দের পূর্ণতা।
বাসস/সবি/এমএসএইচ/১৮৫৫/-শআ