চট্টগ্রামে ঈদের জামাতে করোনামুক্তির প্রার্থনা

92

চট্টগ্রাম, ১৪ মে, ২০২১ (বাসস): ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামে ঈদুল ফিতরের প্রধান ও প্রথম জামাত শুক্রবার (১৪ মে) সকাল ৮টায় নগরীর জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। একই স্থানে দ্বিতীয় জামাত সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হয়। ঈদ জামাত শেষে খুতবা পেশ করা হয়। এরপর দোয়া ও মোনাজাতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে দেশ-জাতিকে রক্ষায় মহান আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা করার পাশাপাশি করোনায় আক্রান্ত ও নিহতদের জন্য দোয়া করা হয়েছে।
চট্টগ্রামে ঈদের প্রথম ও প্রধান জামাতে ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের খতিব সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আল কাদেরী এবং দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহর পেশ ইমাম নূর মুহাম্মদ সিদ্দিকী।
নগরীর লালদীঘি শাহী জামে মসজিদে প্রথম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে এবং দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে। সকাল ৮টায় সুগন্ধা আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, হযরত শেখ ফরিদ (র.) চশমা ঈদগাহ মসজিদ, চকবাজার সিটি করপোরেশন জামে মসজিদ ও মা আয়েশা সিদ্দিকী চসিক জামে মসজিদে (সাগরিকা জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম সংলগ্ন) ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নগরের ৪১টি ওয়ার্ডে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে ১টি করে ঈদ জামাত নিজ নিজ এলাকার মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল সাড়ে ৮টায়।
সবাই দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের নামাজে শরিক হয়েছেন, অনেকের মুখে ছিল মাস্ক হাতে গ্লাভস। নামাজ শেষে অন্যান্য বারের মতো কোলাকুলি বা হাত মেলানো থেকে কেউ কেউ বিরত থাকলেও একে অপরকে ঈদ শুভেচ্ছা জানাতে ভুলেননি। তবে চট্টগ্রামের প্রতিটি ঈদ জামাতে মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্তি পেতে মহান আল্লাহর কাছে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চট্টগ্রামবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, শিক্ষা উপ-মন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী, সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন প্রমুখ।