করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন সাড়ে ২৪ লক্ষাধিক মানুষ

125

ঢাকা, ২৬ এপ্রিল, ২০২১ (বাসস) : দেশে এ পর্যন্ত সাড়ে ২৪ লক্ষাধিক মানুষ করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন। টিকার এই ডোজ গ্রহণকারীর সংখ্যা ২৪ লাখ ৫৮ হাজার ২২৩। এরমধ্যে পুরুষ ১৬ লাখ ৬ হাজার ৮৬৫ এবং নারী ৮ লাখ ৫১ হাজার ৩৫৮ জন।
এদিকে টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন ৫৮ লাখ ১৯ হাজার ২৯১ জন। এরমধ্যে ৩৬ লাখ ৮ হাজার ৬১৬ জন পুরুষ এবং নারী ২২ লাখ ১০ হাজার ৬৭৫।
এ ছাড়া আজ বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ৭২ লাখ ৩৪ হাজার ৭৫৪ জন মানুষ টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় সারাদেশে ১ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৭ জন টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন। এদের মধ্যে পুরুষ ৮২ হাজার ১৫৬ এবং নারী ৪৯ হাজার ২০১ জন। আর প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৮৯১ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৫৫৭ এবং নারী ৩৩৪ জন।
এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৭ লাখ ৬২ হাজার ২৪৩ জন। এরমধ্যে ঢাকা মহানগরীতে ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৬২২ জন। ঢাকা বিভাগে প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১৮ লাখ ৭ হাজার ৭৯৭ জন ও ঢাকা মহানগরীতে নিয়েছেন ৯ লাখ ১৯ হাজার ৮২৬ জন।
ময়মনসিংহ বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৯ হাজার ৫৫৩ জন, প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন ২ লাখ ৮৯ হাজার ২১৫ জন। চট্টগ্রাম বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৫ লাখ ৩৯ হাজার ৬৪৮ জন, প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন ১১ লাখ ৭৭ হাজার ৯৯০ জন। রাজশাহী বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২ লাখ ৫৮ হাজার ২৫১ জন, প্রথম ডোজ ৬ লাখ ৬৩ হাজার ৮৩১ জন। রংপুর বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২ লাখ ২১ হাজার ১৯৩ জন, প্রথম ডোজ ৫ লাখ ৯৬ হাজার ৯৪৩ জন। খুলনা বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৩ লাখ ৩ হাজার ৪৫৬ জন, প্রথম ডোজ ৭ লাখ ৩১ হাজার ৮৯ জন। বরিশাল বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ১১ হাজার ১৪১ জন, প্রথম ডোজ ২ লাখ ৫১ হাজার ২৭০ জন এবং সিলেট বিভাগে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৫২ হাজার ৭৩৮ জন, প্রথম ডোজ ৩ লাখ ১ হাজার ১৫৬ জন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৭ জানুয়ারি করোনার টিকা প্রদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। ওই দিন ২১ জনকে টিকা দেয়া হয়। পরদিন রাজধানীর ৫টি হাসপাতালে ৫৪৬ জনকে পর্যবেক্ষণমূলক টিকা দেয়া হয়েছিল। এরপর গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশব্যাপী গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। প্রথম টিকা নেয়ার ৬০দিন পর ৮ এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় ডোজ দেয়া শুরু হয়েছে।
দেশে টিকা গ্রহণকারী ব্যক্তিদের মধ্যে এখনো তেমন কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার খবর পাওয়া যায়নি।