মানবসেবা শেখ হাসিনা সরকারের প্রথম এজেন্ডা : হুইপ স্বপন

254

জয়পুরহাট, ১৮ এপ্রিল, ২০২১ (বাসস) : মানবসেবা শেখ হাসিনা সরকারের প্রথম এজেন্ডা। এই সরকার সর্বোচ্চ শ্রম বিনিয়োগ করে করোনার মহামারী থেকে জাতিকে রক্ষা করার জন্য আন্তরিকভাবে কাজ করছে। রোববার দুপুরে জেলা প্রশাসন আয়োজিত করোনার সংক্রমণ রোধ বিষয়ক সমন্বয় সভায় একথা বলেন জাতীয় সংসদে হুইপ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি।
জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলার করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা বিষয়ক ওই সমন্বয় সভার আয়োজন করা হয়। আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, জনপ্রতিনিধি ও মাঠ প্রশাসনকে জনগণের পাশে থেকে সচেতনতার মাধ্যমে করোনা মোকাবেলায় আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। ১৯৭১ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ডাকে সাড়া দিয়ে এদেশের মুক্তিপাগল জনগণ নিশ্চিত মৃত্যু জেনেও পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই করে দেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছে। আমাদের মুক্তিযুদ্ধ করার সুযোগ নেই, আজ আমাদের সামনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানবসেবা করার সুযোগ এসেছে। এ সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য তিনি দেশ প্রেমিক জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকদের আহবান জানান।
জেলার করোনা পরিস্থিতির সার্বিক চিত্র তুলে ধরেন সিভিল সার্জন ডা. ওয়াজেদ আলী। জেলা প্রশাসক মো. শরীফুল ইসলাম সমন্বয় সভায় সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন- পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভূঞা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. আরিফুর রহমান রকেট, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম সোলায়মান আলী, কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন, বিএমএ জেলা সেক্রেটারি ডা. কে এম জোবায়ের গালীব, জেলা আধুনিক হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. সরদার রাশেদ মোবারক, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান প্রমুখ।
করোনা মোকাবেলা বিষয়ক সমন্বয় সভায় পাঁচ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, মেয়র, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা পর্যায়ের সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সমন্বয় সভায় জেলা শহরে স্বতন্ত্র আইসোলেশন সেন্টার চালু, অধিকহারে করোনা পরীক্ষা, জেলা আধুনিক হাসপাতালে দ্রুত আইসিইউ চালু করণ, হাই-ফ্লো অক্সিজেন ব্যবস্থা করা, কাঁচাবাজারে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ, মাস্ক ব্যবহারে জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধকরণ ও প্রয়োজনে আইন প্রয়োগ করাসহ করোনা মোকাবেলায় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।