বাসস দেশ-৫৬ : প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের পরিসর বাড়ানো হবে : সমাজকল্যাণমন্ত্রী

194

বাসস দেশ-৫৬
নূরুজ্জামান-সেমিনার
প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের পরিসর বাড়ানো হবে : সমাজকল্যাণমন্ত্রী
ঢাকা, ১২ এপ্রিল, ২০২১ (বাসস) : সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের উদ্ভাবন করেছিলেন। সূচনাকাল থেকে এ কার্যক্রম দেশের দারিদ্র বিমোচনে ভূমিকা রাখছে। প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের পরিসর বাড়ানো হবে।
আজ সমাজসেবা অধিদপ্তর আয়োজিত ‘প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রম (আর এস এস) হতে পারে উন্নয়নের রোল মডেল’ শীর্ষক সেমিনারে অনলাইনে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।
নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধু মাত্র সাড়ে তিন বছরের মধ্যে বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশে পরিণত করতে সক্ষম হয়েছেন। আজকে যারা মিথ্যাচার করে বঙ্গবন্ধুর অমর কীর্তিকে ভুল প্রমাণ করতে চায় তাদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, আপনাদের খেয়াল করা উচিত, বিশে^ বিভিন্ন যুদ্ধের পর মিত্র বাহিনী কতদিন অবস্থান করেছিল, সেখানে বঙ্গবন্ধুর কথায় স্বল্প সময়ের মধ্যে ভারতীয় সৈন্য ফেরত নেয়া হয়েছিল।
মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করার পর প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের উদ্ভাবন করে যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করা হবে। এ কার্যক্রমকে বেগবান করতে ৫শ’ কোটি টাকার তহবিল প্রদানের কাজ চলমান রয়েছে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের সবচেয়ে বড় সম্পদ, মানবসম্পদ। বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দিয়ে পল্লী জনগোষ্ঠীর মেধা ও দক্ষতাকে কাজে লাগাতে হবে। বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের (আর এস এস) মাধ্যমে অতিদরিদ্র শ্রেণীর মানুষকে দারিদ্রতার হাত থেকে রক্ষা করা যায়।
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শেখ রফিকুল ইসলাম।
বাসস/সবি/এমএআর/২২৪০/এবিএইচ