বাসস ক্রীড়া-১১ : ‘এমসিএন’ কম্বিনেশনে পিএসজির নিখাঁদ সূচনা

222

বাসস ক্রীড়া-১১
ফুটবল-ফ্রান্স-লীগ ওয়ান-পিএসজি
‘এমসিএন’ কম্বিনেশনে পিএসজির নিখাঁদ সূচনা
প্যারিস, ২৬ আগস্ট ২০১৮ (বাসস/এএফপি): কিলিয়ান এমবাপে, এডিনসন কভানি এবং নেইমারের (এমসিএন) তারকা দ্যুতিতে শনিবার লীগ ওয়ানে জয়লাভ করেছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। শনিবার প্রাক দেশ প্রিন্সেসে অনুষ্ঠিত ম্যাচে আক্রমণভাগের এই তিন তারকার গোলে ভর করে এনজার্সকে ৩-১ গোলে হারায় পিএসজি।
ফ্রান্সের হয়ে বিশ্বকাপ জয়ের পর প্রথম লীগ ম্যাচে অংশ নিয়ে গোল করেন ‘বিষ্ময় বালক’ কিলিয়ান এমবাপে। এর আগে গোল করে চ্যাম্পিয়নদের এগিয়ে দিয়েছিলেন কাভানি। তবে এনজার্সের হয়ে পেনাল্টি থেকে গোলটি পরিশোধ করে দেন থমাস মানজানি। এমবাপের ভলিতে পিএসজি ফের লীড পাবার পর নেইমার গোল করে বাড়িয়ে দেন জয়ের ব্যবধান।
লীগ শিরোপা রক্ষার মিশন শুরুর পর এটি ছিল পিএসজির তৃতীয় জয়। ম্যাচে এমসিএনভুক্ত তিন তারকা গোল পাওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন ক্লাবের নবনিযুক্ত কোচ থমাস টাসেল। তিনি বলেন,‘ আমরা জয়ের দাবীদার ছিলাম ঠিকই, তবে সেটি ফের কঠিন হয়ে উঠেছিল। এই মুহূর্তে আমরা একেবারেই তরতাজা হয়ে উঠতে পারিনি। কারণ গোটা সপ্তাহ জুড়ে আমাদেরকে কঠিন অনুশীলন করতে হয়েছে।’
ছয় মাসের মধ্যে এই প্রথম এমবাপে, কাভানি ও নেইমার একত্রে মাঠে নেমেছেন। কারণ ইনজুরির কারণে গত মৌসুমের শেষভাগে ত্রিমর্তির একীভূত হবার পথ রুদ্ধ হয়ে গিয়েছিল। সূচনা একাদশে এঞ্জেল ডি মারিয়াকেও অন্তর্ভুক্ত করেছিলেন পিএসজি কোচ টাসেল। এসব ফুটবল তারকাদের দলভুক্ত করতে প্যারিসের ক্লাবটি দলবদল ফি বাবদ বিগত ৫ বছরে ব্যয় করেছে ৫০০ মিলিয়ন ইউরোরও বেশি অর্থ।
টাসেল বলেন, ‘এই মুহুর্তে আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে নেইমারসহ আক্রমণভাগের বাকী খেলোয়াড় ডি মারিয়া, কিলিয়ান ও এডিনসনকে মাঠে কাজে লাগানো। সব খেলোয়াড়ের জন্যই আমাকে অবস্থান তৈরি করতে হবে।’
সালকে থেকে ৩৭ মিলিয়ন ইউরোতে দলভুক্ত করা তরুন ডিফেন্ডার থিয়ালো খেরের জন্যও পরিকল্পনা কষতে হবে জার্মান কোচকে। আক্রমণভাগের মেধাবী খেলোয়াড়দের একীভূত করার জন্য টাসেল ৩-৪-২-১ ফর্মেশনে দল সাজিয়েছেন। কারণ বেশ কিছু প্রতিশ্রিুতিশীল খেলোয়াড়কেও দলে ভিড়িয়েছে পিএসজি।
শনিবার অনুষ্ঠিত লীগ ওয়ানের অন্য ম্যাচে এমিয়েনস এসসি ৪-১ গোলে রেইমসকে, ডিজন ৪-০ গোলে নিসকে এবং টাউলোস ১-০ গোলে নিমেসকে পরাজিত করে। এছাড়া নন্তেস ১-১ গোলে কেইনের সঙ্গে এবং মন্টিফিলার সেন্ট এথিয়েন্সের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে।
বাসস/এএফপি/এমএইচসি/১৯৩৫/মোজা/স্বব