বাসস দেশ-৫৪ : রিয়াদে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

154

বাসস দেশ-৫৪
রিয়াদ-মাতৃভাষা-দিবস
রিয়াদে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ (বাসস) : বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে সৌদি আরবের রিয়াদে যথাযথ মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে।
দিবসটি উপলক্ষে সকালে দূতাবাস চত্বরে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করেন রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। এরপর দূতাবাস চত্বরে স্থাপিত শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রদূত । এ সময় দূতাবাসের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। আজ ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।
দিবসটি উপলক্ষে দূতাবাস সৌদি আরবে বসবাসরত বাংলাদেশি কমিউনিটিকে নিয়ে ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করেন। এ সময় দিবসটি উপলক্ষে প্রদত্ত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে ভাষা শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
বাংলা ভাষার জন্য জীবন উৎসর্গকারী ভাষা শহিদদের স্মরণ করে রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী এ সময় বলেন, মাতৃভাষা রক্ষার দাবীতে পৃথিবীর ইতিহাসে দিবসটি সংগ্রাম ও ভাষার অধিকার আদায়ের এক উজ্জলতম দৃষ্টান্ত। ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারী ভাষার জন্য তাদের এই আত্মত্যাগ পৃথিবীর ইতিহাসে এক বিরল ঘটনা।
তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত দেশের প্রতিটি স্বাধিকার আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন। স্বাধীনতার পর বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করেছেন। ১৯৭৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে প্রথমবারের মত বাংলায় ভাষণ দিয়ে তিনি বাংলা ভাষাকে বিশ্ব দরবারে পরিচয় করিয়ে দেন।
এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে “শিক্ষায় এবং সমাজে বহুভাষার অন্তর্ভুক্তি সযতেœ লালন করি”। এ প্রেক্ষিতে রাষ্ট্রদূত বলেন, সৌদি আরবে বসবাসরত বাংলাদেশি নতুন প্রজন্মকে বাংলা ভাষা শিক্ষার জন্য বিভিন্ন শহরে অবস্থিত আটটি কমিউনিটি স্কুল পরিচালিত হচ্ছে। তিনি বিদেশে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্মকে বাংলা ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়ার আহবান জানান।
দূতাবাসের মিনিস্টার ও কার্যালয় প্রধান ড. ফরিদ উদ্দিন আহমদের উপস্থাপনায় আরও বক্তব্য রাখেন দূতাবাসের ডিফেন্স এ্যাটাশে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ সিদ্দিকী ।
বাসস/সবি/এমএসএইচ/২২৫৫/স্বব