খাল ও লেকে পয়োঃবর্জ্য ফেলা বন্ধ করতে এলজিআরডি মন্ত্রীর আহ্বান

255

ঢাকা, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ (বাসস) : ঢাকা শহরের পয়োঃবর্জ্য খাল ও লেকে ফেলা বন্ধ করতে নগরবাসীর প্রতি আহবান জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়নে ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। তিনি আজ রাজধানীর একটি হোটেলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে ‘ভালবাসা দিবস একদিন, শহরকে ভালবাসি প্রতিদিন’ শীর্ষক পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থাপনা বিষয়ক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহবান জানান।
মো. তাজুল ইসলাম বলেন, রাজধানীর অধিকাংশ পয়োঃবর্জ্য খালে ও লেকে ফেলা হয়। এটি দ্রুত বন্ধ করতে হবে। এই পয়োঃবর্জ্যের লাইন কিভাবে বন্ধ করা যায় সে বিষয়ে পরিকল্পনা করার পাশাাপাশি একটা টাইমলাইন নির্ধারণ এবং একটি কমিটি গঠন করা জরুরি। তিনি বলেন, মানুষকে শুধু ভালবাসলে হবে না, যে শহরে আমরা বসবাস করি সে শহরকে ভালবাসার পাশাপাশি প্রকৃতি ও পরিবেশকেও ভালবাসতে হবে। নিজের আবাসস্থল, চারপাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে, যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা না ফেলে শহরের প্রতি ভালোবাসার মানসিকতা তৈরি করতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, ঢাকা শহরকে স্যুয়ারেজের আওতায় আনার জন্য ৫টি পয়োঃশোধনাগার করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে দাশেরকান্দি প্রকল্পের কাজ প্রায় শেষ। এছাড়া অন্যান্য প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে। এগুলোর কাজ শেষ হলে পুরো ঢাকা শহরের পয়োঃশোধনাগার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।
তিনি বলেন, ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা ও খালের দায়িত্ব দুই সিটি কর্পোরেশনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এখন রাজধানীতে যে সকল লেক আছে সেগুলো সিটি কর্পোরেশনের নিকট হস্তান্তরের দাবি আসছে। সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। এছাড়া, কর্মশালায় রাজউক, ঢাকা ওয়াসা, গৃহায়ন কর্তৃপক্ষসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রধান, নগর পরিকল্পনাবিদ, স্থপতি এবং এনজিও প্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অংশ নেন।