শিক্ষার্থীদের ডিজিটাল প্রযুক্তির বেসিক দক্ষতা অর্জন অপরিহার্য : জব্বার

810

ঢাকা, ২০ জানুয়ারি, ২০২১ (বাসস) ঃ ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের বিষয়ভিত্তিক পড়ালেখার পাশাপাশি ডিজিটাল প্রযুক্তির বেসিক দক্ষতা অর্জনের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন।
তিনি বলেন,‘ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীরা যে বিষয় নিয়েই অধ্যয়ন করুক না কেন,পাশাপাশি ডিজিটাল বিষয়ে বেসিক দক্ষতা অর্জন করা তাদের জন্য অপরিহার্য। কারণ,চতুর্থ শিল্প বিপ্লব যুগের কর্মসংস্থানের জন্য ডিজিটাল দক্ষতা অর্জনের বিকল্প নেই।’
মন্ত্রী মেধাচর্চার কেন্দ্রভূমি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে এ ব্যাপারে উদ্যোগী ভূমিকা গ্রহণে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
মোস্তাফা জব্বার আজ বুধবার বগুড়ায় ‘কোভিড-১৯ মোকাবেলায় প্রযুক্তির ব্যবহার ঃ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শীর্ষক ভার্চ্যূয়াল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ আহবান জানান। বগুড়াস্থ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এক ওয়েবিনারে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর এ এন এম রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান প্রফেসর হোসনে আরা বেগম, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর সাদেকুল আরেফিন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম, সিটি ব্যাংক কর্মকর্তা অরূপ হায়দার প্রমূখ বক্তৃতা করেন। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রফেসর খসরু।
মোস্তাফা জব্বার,করোনাকালে ডিজিটাল প্রযুক্তির সুফল কাজে লাগিয়ে দেশের মানুষের জীবনযত্রা সচল রাখতে সরকার গৃহীত বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরে বলেন, ‘আগামী সভ্যতা গড়ে উঠবে ডিজিটাল সংযুক্তির উপর। প্রচলিত শিক্ষা ডিজিটাল শিক্ষায় রূপান্তর না হলে কঠিন চ্যালেঞ্জ আমাদেরকে মোকাবেলা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি আমাদের এগিয়ে যাওয়ার চালিকা শক্তি। করোনাকালে উন্নত দুনিয়ার তুলনায় আমাদের ভাল করার মূল মন্ত্রটি ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি।
তিনি বলেন প্রযুক্তির কারণে,দেশের শতকরা সত্তর ভাগ করোনা রোগী ঘরে বসে অনলাইনে চিকিৎসা নিয়েছে। শিক্ষা-বাণিজ্য, অফিস, আদালত ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে সচল রয়েছে। দুর্গম গ্রামের শিশুটিও ইন্টারনেটকে তার শিক্ষার পাথেয় হিসেবে ব্যবহার করছে।
মন্ত্রী বলেন,‘দেশের প্রতিটি অঞ্চলে ডিজিটাল অবকাঠামো গড়ে উঠায় করোনাকালে ইন্টারনেটের চাহিদা দ্বিগুণ বেড়ে যাওয়া সত্ত্বেও বিনা প্রস্তুতিতেও আমরা তা সরবরাহ করতে সক্ষম হয়েছি। হয়ত স্থান ভেদে গতির কিছুটা দুর্বলতা ছিল।’ তবে এ বছরের মধ্যে দেশের প্রতিটি মানুষের দোরগোড়ায় উচ্চ গতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর বলে মোস্তাফা জব্বার উল্লেখ করেন।