চতুর্থ ধাপে ৫৬টি পৌরসভায় ভোট গ্রহণ ১৪ ফেব্রুয়ারি

352

ঢাকা, ৩ জানুয়ারি, ২০২০ (বাসস) : চতুর্থ ধাপে ৫৬টি পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
আজ নির্বাচন কমিশন (ইসি) এ তফসিল ঘোষণা করে । রাতে কমিশনের যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান আরজু তফসিল ঘোষণার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ১৭ জানুয়ারি। মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাই ১৯ জানুয়ারি। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৬ জানুয়ারি।
৫৬টি পৌরসভার মধ্যে ৩১টি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এবং ২৫টি পৌরসভায় ব্যালটের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি জানান।
চতুর্থ ধাপে যেসব পৌরসভায় ভোট হবে সেগুলো হলো- ঠাকুরগাঁও জেলার ঠাকুরগাঁও (ইভিএম) ও রানীশৈংকল, রাজশাহীর নওহাটা, গোদাগাড়ী (ইভিএম), তানোর ও তাহেরপুর। লালমনিরহাটের লালমনিরহাট সদর (ইভিএম) ও পাটগ্রাম। নরসিংদীর নরসিংদী সদর ও মাধবদী (ইভিএম)। রাজবাড়ীর রাজবাড়ী সদর (ইভিএম) ও গোয়ালন্দ।
বরিশালের মুলাদী (ইভিএম) ও বানারীপাড়া। শেরপুরের শেরপুর সদর (ইভিএম) ও শ্রীবরদী। চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ (ইভিএম)। নাটোরের বড়াইগ্রাম ও নাটোর। খাগড়াছড়ির মাটিরাঙা।
বান্দরবানের বান্দরবান (ইভিএম) ও বাগেরহাটের বাগেরহাট (ইভিএম)। সাতক্ষীরার সাতক্ষীরা (ইভিএম) ও হবিগঞ্জের চুনারুঘাট (ইভিএম)। কুমিল্লার হোমনা (ইভিএম) ও দাউদকান্দি (ইভিএম)।
চট্টগ্রামের সাতকানিয়া, পটিয়া (ইভিএম) ও চন্দনাইশ। কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর (ইভিএম), হোসেনপুর ও করিমগঞ্জ। টাঙ্গাইলের গোপালপুর (ইভিএম) ও কালিহাতী। পটুয়াখালীর কলাপাড়া (ইভিএম), চুয়াডাঙ্গার জীবননগর ও আলমডাঙ্গা (ইভিএম)।
ফেনীর পরশুরাম (ইভিএম), চাঁদপুরের কচুয়া (ইভিএম) ও ফরিদগঞ্জ। মাদারীপুরের কালকিনি (ইভিএম), নেত্রকোনার নেত্রকোনা সদর (ইভিএম), যশোরের চৌগাছা (ইভিএম) ও বাঘারপাড়া। রাঙামাটির রাঙামাটি (ইভিএম), মুন্সীগঞ্জের মিরকাদিম (ইভিএম), শরীয়তপুরের ডামুঢ্যা ও জামালপুরের মেলান্দহ।
ময়মনসিংহের ফুলপুর (ইভিএম), জয়পুরহাটের আক্কেলপুর (ইভিএম) ও কালাই। নোয়াখালীর চাটখিল (ইভিএম), ব্রাহ্মণাড়িয়ার আখাউড়া (ইভিএম), লক্ষ্মীপুরের রামগতি (ইভিএম) এবং ফরিদপুরের নগরকান্দা ও সিলেটের কানাইঘাট পৌরসভা।
উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে ৩২৯টি পৌরসভা রয়েছে। গত ২২ নভেম্বর প্রথম ধাপের ২৫টি পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী গত ২৮ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই ধাপের নির্বাচনে ৬৫.৬ শতাংশ ভোট পড়ে।
এরপর গত ২ ডিসেম্বর দ্বিতীয় ধাপের ৬১টি পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। দ্বিতীয় ধাপের তফসিল অনুযায়ী আগামী ১৬ জানুয়ারি ৬১টি পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ২৯টি পৌরসভায় ইভিএমে এবং ৩২টি পৌরসভায় ব্যালটের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হবে।