বাসস দেশ-৪৬ : উগ্র ধর্মান্ধতা ও জঙ্গীবাদ থেকে জাতিকে রক্ষা করতে সংস্কৃতিকে ছড়িয়ে দিতে হবে : মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী

209

বাসস দেশ-৪৬
মৎস্য-অ্যাওয়ার্ড
উগ্র ধর্মান্ধতা ও জঙ্গীবাদ থেকে জাতিকে রক্ষা করতে সংস্কৃতিকে ছড়িয়ে দিতে হবে : মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী
ঢাকা, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০ (বাসস) : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম.রেজাউল করিম বলেছেন, উগ্র ধর্মান্ধতা ও জঙ্গিবাদ থেকে জাতিকে রক্ষা করতে সংস্কৃতিকে বেশি করে ছড়িয়ে দিতে হবে।
আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বেসরকারি টেলিভিশন আরটিভি আয়োজিত ‘১০ম আরটিভি স্টার অ্যাওয়ার্ড, ২০২০’ প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন ।
রেজাউল করিম আরো বলেন, ‘হাজার বছরের অকৃত্রিম ঐতিহ্য হচ্ছে হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ধর্মের অসা¤প্রদায়িক বাংলাদেশ। সে বাংলাদেশকে মাঝে মধ্যেই ছোবল দেয় সা¤প্রদায়িক উগ্র গোষ্ঠী। তারা ১৯৪৭ সালে সেই স্বপ্নে বিভোর ছিলো, পরবর্তীতে সা¤প্রদায়িক দাঙ্গা করেছিলো। মুক্তিযুদ্ধের সময় তারা ইসলামের নাম ব্যবহার করে এদেশকে ধ্বংস করতে চেয়েছিলো। সা¤প্রতিক সময়ে আবার তারা মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার দুঃসাহস দেখাচ্ছে। সেক্ষেত্রে শিল্প, সংস্কৃতি মাধ্যমে যারা আছেন, যারা অভিনয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট আছেন তাদের ক্ষেত্রকে স¤প্রসারিত করা দরকার।’
তিনি আরো বলেন, ‘একজন শিল্পীর একটি ভূমিকা অনেক ক্ষেত্রেই রাজনীতিবিদদের এক মাসের বক্তৃতার চেয়ে অনেক বেশি ভূমিকা রাখে। বাঙালির নিজস্ব সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্য, আমাদের জারি, সারি, পল্লীগীতি, যাত্রা, নাটক ও চলচ্চিত্রকে আরো সমৃদ্ধ করতে হবে। আমাদের তুলে ধরতে হবে, এ বাংলাদেশ শিল্প ও সংস্কৃতির বাংলাদেশ। এ বাংলাদেশ মৌলবাদীদের ছোবলের বাংলাদেশ নয়।’
অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি, আরটিভির ভাইস চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবির বাবলু ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক রহমান।
অনুষ্ঠানে ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত আরটিভিতে প্রচারিত সকল নাটকের মধ্য থেকে সৃজনশীল নাট্যকার, নাট্য পরিচালক ও অভিনয় শিল্পীদের অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয় এবং বরেণ্য নাট্যব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদকে আজীবন সম্মাননা দেয়া হয়। মামুনুর রশীদের হাতে আজীবন সম্মাননা অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী।
বাসস/সবি/এমএআর/২২২০/-স্বব