বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে সংসদ সচিবালয় ফোরামের মানববন্ধন

452

ঢাকা, ২২ ডিসেম্বর ২০২০ (বাসস) : সংসদ সচিবালয় কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরামের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুর ও অবমাননার প্রতিবাদে “প্রতিবাদী মানববন্ধন” কর্মসূচী মানিক মিয়া এভিনিউতে পালিত হয়েছে।
সোমবার সংসদ সচিবালয়ের সহস্রাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে দক্ষিণ প্লাজার পাশে জড়ো হন। এরপর র‌্যালী করে মানিক মিয়া এভিনিউতে গিয়ে তারা মানববন্ধন করেন।
র‌্যালী ও মানববন্ধনে সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, অতিরিক্ত সচিব নুরুজ্জামান, অতিরিক্ত সচিব স্বপন কুমার বড়াল, সংসদ সচিবালয় কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরামের সভাপতি উপসচিব এ কে এম জি কিবরিয়া মজুমদার, সিনিয়র সহসভাপতি উপসচিব এস এম মঞ্জুর, সহসভাপতি পরিচালক খান মোহাম্মদ ইলিয়াস, সহসভাপতি পরিচালক তারিক মাহমুদ, সহসভাপতি উপসচিব আব্দুল কাদের জিলানী, সহসভাপতি সহকারী সার্জেন্ট এট আর্মস মোঃ মঞ্জুরুল হোসাইন, সহসভাপতি কমিটি অফিসার (চলতি দায়িত্ব) খায়রুল বশার, সাধারণ সম্পাদক সহকারী সচিব মোঃ আসিফ হাসানসহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ ও সকল স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ অংশ গ্রহণ করেন।
সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব জাফর আহমেদ খান মানববন্ধনে বলেন, “দেশ যখন প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে মুজিববর্ষ পালন করছে, তখন উৎকট কিছু বিষয় জনমনে বিভ্রান্তি তৈরি করছে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে বঙ্গবন্ধুকে অবমানা করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা মানে রাষ্ট্রকে অবমাননা। একটি কুচক্রী মহল জনগণকে বিভ্রান্ত করে ফায়দা হাসিল করতে চায়।
সংসদ সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব নুরুজ্জামান মানববন্ধনে বলেন, “১৯৭৫ সালে একবার ষড়যন্ত্র করে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে, এখন দেশ যখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে, তখন আবার ষড়যন্ত্র করছে, মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। এ অবস্থায় আমরা চুপ করে থাকব না। এদের অবশ্যই রুখে দিতে হবে। শুধু আইন দিয়ে নয়, এই কুচক্রী ষড়যন্ত্রকারীদের রুখতে আমরা রাস্তায় নেমেছি।”
ফোরামের সভাপতি উপসচিব এ কে এম জি কিবরিয়া মজুমদার বলেন, “জাতির পিতার অবমাননা সংবিধানের অবমাননার শামিল। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান আইনসভার কর্মচারী হিসেবে সংবিধান সংরক্ষণ আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। সঙ্গত কারণে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে জাতির পিতার অবমাননাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি। ”
সংসদ সচিবালয়ের পরিচালক (গণসংযোগ) ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয় কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরামের সহসভাপতি তারিক মাহমুদ মানববন্ধনে বলেন, “যারা ইসলামের নামে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের চেতনায় আঘাত করতে চায়, তাদের ধিক্কার জানাই। তারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যই শুধু ভাঙেনি, তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর আঘাত করেছে। হুঁশিয়ার করে দিতে চাই, ইসলামের নামে ভাস্কর্য অবমাননা করবেন না। আমরা হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)-এর ইসলামের অনুসারী। তোমরা তোমাদের ইসলাম নিয়ে মাদ্রাসায় থাক। আমরাও মুসলমান। বাড়িতে কোরআন পড়ি। ইসলাম চর্চা করি। তোমাদের মূর্খতা দিয়ে জাতিকে বিভ্রান্ত করার অপপ্রয়াস রুখে দেয়া হবে।”
সংসদ সচিবালয় কর্মকর্তা-কর্মচারী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সহকারী সচিব মোঃ আসিফ হাসানের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে সহকারী পরিচালক তানজীনা তানিন, কম্পিউটার অপরাটের আবুল খায়ের উজ্জ্বল মানবন্ধনে বক্তব্য দেন।
সংসদ সচিবালয় ছাড়াও গণপূর্ত বিভাগ, সোনালী ব্যাংক (সংসদ সচিবালয় শাখা), নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত পুলিশ, মেডিকেল সেন্টারে কর্মরতরাও মানববন্ধনে অংশ নেন।