বাসস-দেশ-২ : চাঁপাইনবাবগঞ্জে বস্তিবাসীদের স্বপ্ন পূরণ

180

বাসস-দেশ-২
স্বপ্ন পূরণ
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বস্তিবাসীদের স্বপ্ন পূরণ
চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ২২ ডিসেম্বর, ২০২০ (বাসস) : “আমরা এখন ভালো আছি। আমাদের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে,” বললেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার মোন্নাপাড়া বস্তির মোসাঃ সাগরী বেগম।
সাগরী বেগম মোন্নাপাড়া বস্তি উন্নয়ন কমিটির চেয়ারপার্সন।
তিনি জানালেন, এ বস্তিতে আগে কোন রাস্তা ছিল না, কোন বৈদ্যুতিক আলো ছিলনা, সুপেয় পানির ব্যবস্থা ছিলনা, স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা কিংবা গোসলখানা ছিলনা, পয়ঃনিষ্কাশন এর ব্যবস্থা ছিলনা এবং ছিলনা কোন ময়লা ফেলার জায়গা। এখন এগুলো সব আছে, পৌরসভা এসব ব্যবস্থা করে দিয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ সাদেকুল ইসলাম জানালেন, দ্রুত জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে এবং গ্রামে কর্মসংস্থান না থাকায় গ্রামের দরিদ্র জনগোষ্ঠী দ্রুত শহরমুখী হচ্ছে এবং তারা এসে শহরের বস্তিতে আশ্রয় নিচ্ছে – গড়ে তুলছে অপরিকল্পিত আবাস। এতে বস্তির পরিবেশ নষ্ট হওয়ায় মানুষ ব্যাপকভাবে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছে।
সরকারের বস্তি উন্নয়ন পরিকল্পনার অংশ হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা তৃতীয় নগর পরিচালন অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প (ইউজিআইআইপি-৩) এর মাধ্যমে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের তত্বাবধানে ৩,৪৭,৫০,৮৬১ টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এতে অর্থায়ন করেছে বাংলাদেশ সরকার, এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক ও ওএফআইডি।
তিনি আরও জানান, পৌর এলাকার ৬টি বস্তির প্রায় ৫,০০০ মানুষের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে ২.৭০ কিমি পাকা ফুটপাত, ১ কিমি পাকা নালা, ১০১ টি স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা, ১৫ টি ডাস্টবিন নির্মাণ করা হয়েছে এবং ২২ টি সৌর লাইট ও ৪৫ টি সেমি ডিপ টিউবওয়েল বসানো হয়েছে।
মোন্নাপাড়া বস্তির সাগরী বেগম জানালেন, তাঁদের বস্তিতেই ১৫ টি স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা, ৭ টি সেমিডিপ নলকূপ, ৭ টি সৌরবাতি, ৩ টি ডাস্টবিন, ৪২৫ মিটার ফুটপাত ও ১৬০ মিটার পাকা নালা পেয়েছেন। তাঁর নেতৃত্বে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট বস্তি উন্নয়ন কমিটি এসব দেখাশোনা করে।
তিনি বলেন, “আমাদের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। এ বস্তির ১০৫ টি পরিবার এখন আমরা অনেক ভালো আছি। ”
বাসস/এনডি/সংবাদদাতা/১০২০/নূসী