বাসস ক্রীড়া-১৩: রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ডোপিং কেলেঙ্কারি : বিশ্বকাপ ও অলিম্পিক থেকে নিষিদ্ধ রাশিয়া

173

বাসস ক্রীড়া-১৩
ডোপিং-রাশিয়া- সিএএস
রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ডোপিং কেলেঙ্কারি : বিশ্বকাপ ও অলিম্পিক থেকে নিষিদ্ধ রাশিয়া
লুসান, ১৮ ডিসেম্বর ২০২০ (বাসস) : রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ডোপিং কেলেঙ্কারির জন্য ২০২০ টোকিও অলিম্পিক ও ২০২২ কাতার বিশ্বকাপে অংশ নিতে পারবে না রাশিয়া। আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালতে (সিএএস) আপীলের পর চার বছরের নিষেধাজ্ঞা দুই বছরে কমিয়ে আনলেও নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেনি। এই সময়ের মধ্যে রাশিয়া কোনো বৈশ্বিক ক্রীড়া ইভেন্ট আয়োজনও করতে পারবে না।
২০১৯ সালে জানুয়ারির তদন্তে ডোপিংয়ের নমুনা নিয়ে কারসাজির ৫ অভিযোগ উঠেছিল রাশিয়ার বিরুদ্ধে। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গত বছর ৯ ডিসেম্বর সুইজারল্যান্ডের লুসানে ওয়াডার মাধ্যমে চার বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয় রাশিয়াকে। তবে সিএএস ওই মেয়াদ কমিয়ে ২ বছর করেছে।
এই রায়ের ফলে আগামী দুই বছর বৈশ্বিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় নিষিদ্ধ থাকবে রাশিয়ার জাতীয় পতাকা ও জাতীয় সংগীত । তবে যেসব রুশ প্রতিযোগী ডোপ পরীক্ষায় উত্তীর্ন হবেন তাদের নিরপেক্ষ প্রতিযোগী হিসেবে অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকবে। দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে আগামী ২০২২ সালের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত। ফলে ২০২২ সালের প্যারা অলিম্পিকেও অংশ নিতে পারবে না রাশিয়া।
গতকাল দেয়া সিএসের রায়ে বলা হয় ‘নীতিমালার ভয়াবহ লঙ্ঘনের ফল হিসেবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্যানেল। ডোপিংয়ের বিরুদ্ধে খেলাধুলার নৈতিকতা নিশ্চিতের ধারাবাহিকতা রাখা হবে।’
তবে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও এক বছর পিছিয়ে আগামী বছর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে পারবে রাশিয়া। কারণ ডোপ নীতিমালার অধীনে ইউরোপীয়ান ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা উয়েফাকে ‘বড় আসর আয়োজনের সংস্থা’ হিসেবে বিবেচনা করা হয় না।
বাসস/ওয়েবসাইট/এমএইচসি/২০৪৯/স্বব