এডিআর আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের এলসি বিরোধ মীমাংসার সর্বোত্তম পন্থা

275

ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০২০ (বাসস) : বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশাল আরবিট্রেশন সেন্টার (বিয়াক) এবং ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) গতকাল ভার্চুয়াল মাধ্যমে একটি ওয়েবিনারের আয়োজন করে, যার বিষয়বস্তু ছিলো ‘বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি (এডিআর) পদ্ধতির মাধ্যমে ঋণপত্র (এলসি) বিষয়ক আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক বিরোধ মীমাংসা’।
ওয়েবিনারে অংশগ্রহণ করে দেশ বিদেশের এডিআর বিশেষজ্ঞ,ব্যাংকার,আইনজীবী ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ অভিমত ব্যক্ত করেন যে, ঋণপত্র থেকে উদ্ভুত আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বিরোধ সমাধানে যে সব বিষয় উঠে আসতে পারে সে সবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রচলিত আদালত ব্যবস্থায় প্রতিকার চাওয়ার চেয়ে এডিআর পদ্ধতির অনুসরণ সহজতর,অর্থ ও সময় সাশ্রয়ী হতে পারে।
ডিসিসিআই সভাপতি শামস মাহমুদ ওয়েবিনারে উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন,এডিআর পদ্ধতি অনুসরণ করে নিষ্পত্তি করা গেলে দেশে বৈদেশিক বিনিয়োগ বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে।এ লক্ষ্যে ডিসিসিআই ও বিয়াক একযোগে কাজ করছে বলে তিনি জানান। আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে দুই পক্ষের মধ্যে ঋণচুক্তির অসামঞ্জস্য দূর করে বাস্তবমুখী ও জনকল্যাণমূলক শর্ত সংবলিত ঋণচুক্তি প্রণয়নের ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।
বিয়াক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ এ. আলী (রুমি) বলেন,সালিশি ও মধ্যস্থতা কার্যক্রম দ্বারা এ সব বিরোধ নিষ্পত্তি দ্রুততর ও অর্থ সাশ্রয়ী হয়ে থাকে এবং এগুলো নিষ্পত্তিতে বিয়াক তার নিজস্ব বিধিমালা প্রয়োগে সাফল্য অর্জন করতে শুরু করেছে।
দেশ ও দেশের বাইরে থেকে মোট ৭জন বিশিষ্ট আলোচক ওয়েবিনারে অংশগ্রহণ করেন।