বাসস দেশ-৩৫ : সিলেটে রায়হানের মৃত্যু : আশেকে এলাহি ৫ দিনের এবং হারুনুর রশিদ ৩ দিনের রিমান্ডে

171

বাসস দেশ-৩৫
রায়হান-মৃত্যু-রিমান্ড
সিলেটে রায়হানের মৃত্যু : আশেকে এলাহি ৫ দিনের এবং হারুনুর রশিদ ৩ দিনের রিমান্ডে
সিলেট, ২৯ অক্টোবর, ২০২০( বাসস) : সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হন আহমদের মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেফতারকৃত পুলিশের এএসআই আশেকে এলাহিকে ৫ দিনের এবং কনস্টেবল হারুনুর রশিদকে ৩ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের ( পিবিআই) ইন্সপেক্টর মাহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, এ মামলায় এ পর্যন্ত ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
আজ বৃহস্পতিবার সিলেট চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট মো, জিয়াদুর রহমানের আদালতে পুলিশের এ এস আই আশেকে এলাহিকে হাজির করা হয়। এসময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই’র ইন্সপেক্টর মাহিদুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। শুনানি শেষে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।
এরআগে গতকাল বুধবার রাতে বন্দরবাজার ফাঁড়ির এএসআই (সাময়িক বরখাস্ত) আশেকে এলাহীকে গ্রেফতার করে পিবিআই। পরে তাকে আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে সিলেট চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। আশেকে এলাহীকে প্রথমবারের মতো ৫ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়।
অপরদিকে এ মামলার আরেক অভিযুক্ত বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির কনস্টেবল (সাময়িক বরখাস্তকৃত) হারুনুর রশিদকে দ্বিতীয় দফায় ৩ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। প্রথম দফার ৫ দিনের রিমান্ড শেষে আজ বিকেল ৩টার দিকে চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে তাকেও হাজির করা হয়। পিবিআই’র ইন্সপেক্টর মাহিদুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে ৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। শুনানী শেষে বিচারক মো. জিয়াদুর রহমান তার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এরআগে গত ২৪ অক্টোবর কনস্টেবল হারুনুর রশিদকে প্রথম দফা ৫ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। ওই দিন (২৪ অক্টোবর) সকালে হারুনুর রশীদকে পুলিশ লাইন্স থেকে গ্রেফতার করে পিবিআই। পরে তার বিরুদ্ধে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হলে শুনানি শেষে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।
এ নিয়ে এ মামলায় তিন পুলিশসহ চারজনকে গ্রেফতার করা হলো। এরমধ্যে গত ২৫ অক্টোবর শেখ সাইদুর নামে একজনকে সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার করেছে পিবিআই। পরে তাকে ৫৪ ধারায় আদালতে সোপর্দ করা হয়।
গত ১১ অক্টোবর ভোরে সিলেট মেট্রোপলিটনের বন্দর বাজার ফাঁড়িতে রায়হান আহমদ নামের এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় ফাঁড়ির বহিষ্কৃত কনস্টেবল হারুনুর রশীদকে গ্রেফতার করে পিবিআই। এর আগে গত ২০ অক্টোবর বহিষ্কৃত কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাসকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে এ ঘটনার মূল অভিযুক্ত বন্দরবার পুলিশ ফাঁড়ির সদ্য বহিষ্কৃত ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া এখনো পলাতক রয়েছেন।
গত ১১ অক্টোবর ভোরে পুলিশের নির্যাতনে রায়হান উদ্দিন (৩৩) নামে এক যুবক নিহত হওয়ার দাবি করেন পরিবারের সদস্যরা। ওই যুবক সিলেটের আখালিয়ার নেহারিপাড়ার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, ছিনতাইকালে গণপিটুনিতে মারা গেছেন রায়হান। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, পুলিশ ধরে নিয়ে নির্যাতন করার পর রায়হানের মৃত্যু হয়।
এ ঘটনায় ১১ অক্টোবর দিবাগত রাতে রায়হানের স্ত্রী বাদি হয়ে অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে কোতোয়ালী থানায় একটি মামলা করেন। মামলাটি বর্তমানে তদন্ত করছে পিবিআই।
বাসস/সংবাদদাতা/এফএইচ/২০১২/-এবিএইচ