বাসস দেশ-৪১ : নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ করার তাগিদ পূর্ত প্রতিমন্ত্রীর

226

বাসস দেশ-৪১
প্রকল্প-তাগিদ
নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ করার তাগিদ পূর্ত প্রতিমন্ত্রীর
ঢাকা, ২০ অক্টোবর, ২০২০ (বাসস) : নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ করার তাগিদ দিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ।
আজ বিকেলে রাজউকের বাস্তবায়নাধীন উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্প এবং গণপূর্ত অধিদপ্তরের বাস্তবায়নাধীন সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য নির্মাণাধীন ফ্ল্যাট প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে তিনি একথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী মঙ্গলবার বিকেলে উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টরে উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্প পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে তিনি প্রকল্পের বিভিন্ন অ্যাপার্টমেন্ট ঘুরে দেখেন। প্রকল্প এলাকা বিভিন্ন স্থাপনা এক এক করে তিনি পরিদর্শন করেন। এসময় প্রকল্পের রেইন ওয়াটার হারভেস্টিং প্লান্ট পরিদর্শন করেন। রাজধানী ঢাকার অদূরে মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন এই আবাসন প্রকল্পের সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন।
প্রকল্প এলাকার ৫৫ শতাংশ জমি খেলার মাঠ, পার্ক, সবুজায়ন ও রাস্তার জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে। প্রকল্পের অভ্যন্তরে মসজিদ, কমিউনিটি সেন্টার, কিচেন মার্কেট, সুপার শপ এবং কমার্শিয়াল কমপ্লেক্সের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া গভীর নলকূপ স্থাপনের মাধ্যমে ডিস্ট্রিক্ট মিটারিং এরিয়া (ডিএমএ) এর পরিবর্তে এইচডিপিই পাইপ ব্যবহার করে পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা হয়েছে যা অধিকতর টেকসই ও দীর্ঘস্থায়ী। প্রকল্পের প্রত্যেকটি ভবনে পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরা, অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা, স্ট্যান্ডবাই জেনারেটরের মাধ্যমে ইমার্জেন্সি বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
এ প্রকল্পের প্রত্যেকটি ভবনে সুয়ারেজ ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপন করা হয়েছে এবং রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং এর ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবলের মাধ্যমে ভবনে বৈদ্যুতিক সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে। এতে সৌন্দর্য এবং অগ্নিনিরাপত্তা বৃদ্ধি পেয়েছে।
মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, সংসদ সদস্য, বিচারপতি, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, সরকারি/বেসরকারি চাকরিজীবী, শিল্পী-সাহিত্যিক, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব, আইনজীবী, ব্যবসায়ীসহ ২২ ক্যাটাগরির লোকজন এখানে ফ্ল্যাটের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আবেদন কারীর বয়স নূন্যতম ১৮ বছর হতে হবে।
এরপর প্রতিমন্ত্রী মিরপুর ৬ নম্বর সেক্টরে গণপূর্ত অধিদপ্তরের বাস্তবায়নাধীন সরকারি কর্মকতাদের জন্য ২৮৮ টি ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্প পরিদর্শন করেন।
২৯০ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়নাধীন এ প্রকল্প এবছরের ডিসেম্বর মাসে শেষ হওয়ার কথা।
বর্তমানে প্রকল্পের ভৌত ও আর্থিক অগ্রগতি যথাক্রমে ৭৪ শতাংশ ও ৫৭ শতাংশ। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ করা সম্ভব হবে বলে প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: শহীদ উল্যা খন্দকার, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আশরাফুল আলম, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) চেয়ারম্যান মোঃ: সাঈদ নূর আলম এবং মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা কর্মচারীগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
বাসস/সবি/এমএসএইচ/২১৫৫/-এবিএইচ