লিবিয়ায় আক্রমণ থেকে বেঁচে যাওয়া বাংলাদেশি অভিবাসীদের ফিরিয়ে আনতে সহায়তা করেছে আইওএম

412

ঢাকা, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০ (বাসস) : আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) গত সপ্তাহে লিবিয়া থেকে একটি স্বেচ্ছাসেবী মানবিক বিমানে করে লিবিয়াায় আক্রমণ থেকে বেঁচে যাওয়ারাসহ ১৬৪ বাংলাদেশি অভিবাসীকে দেশে ফিরতে সহযোগিতা করেছে।
আজ এখানে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হজরত শাজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করা চার্টার্ড ফ্লাইটটিতে ছিলেন লিবিয়ার মিজদাহ’র মর্মান্তিক ঘটনায় বেঁচে যাওয়া নয় বাংলাদেশী। গত মে মাসে এ ঘটনায় ২৬ বাংলাদেশীসহ ৩০ অভিবাসীকে পাচারকারীদের একটি গুদামে গুলি করে হত্যা করা হয়।
ত্রিপোলির দক্ষিণ-পশ্চিমে গারিয়ান নগরীর নিকটবর্তী মিজদার এই মারাত্মক আক্রমণে আরো ১১ জন অভিবাসী গুরুতর আহত হন। পরবর্তী মাসগুলিতে আইওএম এবং অংশীজনরা বেঁচে থাকা ব্যক্তিদের সহায়তা দিয়েছে।
চিকিৎসার প্রয়োজস আছে এমন ৩৯ জন সহ ফ্লাইটে আরো ১০০ জনেরও বেশি দুর্বল অভিবাসী ছিলেন।
আইওএম মেডিকেল এসকটরা তাদের সাথে ভ্রমণ করেন।
আগমনের পরে আইওএম মেডিকেল টিম বর্তমানে সরকারি ব্যবস্থাপনায় কোয়ারেন্টিনে থাকা অভিবাসীদের জন্য স্বাস্থ্যসেবা সমন্বয় করতে ঘটনাস্থলে ছিলেন।
আইওএম বাংলাদেশের মিশন প্রধান গিওর্গি গিগোরি বলেন, আইওএম অভিবাসীদের স্বাস্থ্যসেবা, আশ্রয়, খাদ্য ও কনস্যুলার পরিষেবা নিশ্চিত করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করছে।