দোষী চালককে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

368

ঢাকা, ১ আগস্ট, ২০১৮ (বাসস) : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, রাজধানীর এয়ারপোর্ট সড়কে দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় দোষী চালককে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে।
তিনি বলেন, ‘যারা নিরপরাধ ফুলের মতো শিশুদের ওপর বাস চালিয়ে দিয়েছে আমি তাদের প্রতি ঘৃণা এবং অপরাধীদের বিচারের দাবি জানাই। এসব অপরাধীরা অবশ্যই শাস্তি পাবে, কারণ কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়।’
স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ বুধবার রাজধানীর ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিশ^ মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
দোষীদের বিচারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের থামাতে অভিভাবকদের প্রতি বিশেষ অনুরোধ জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘আমি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলছি, দয়া করে আপনারা আপনাদের সন্তানদের আর রাস্তায় পাঠাবেন না। এতে আপনারাসহ সারা দেশবাসী ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আপনারাই আপনাদের বাচ্চাদের নিয়ে স্কুলে যেতে পারছেন না। একটি অন্যায়কে আরেকটি অন্যায় দিয়ে প্রতিবাদ করা যায় না।’
তিনি বলেন, বাস দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় ঘৃণা ও ধিক্কার জানাই। এমন ঘটনা কেউ সমর্থন করে না। এটি নিঃসন্দেহে বড় অপরাধ। কিন্তু এটাও বুঝতে হবে যে, দুর্ঘটনা ঘটার পর থেকেই সময়ক্ষেপণ না করে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে চলেছে সরকার। স্বল্প সময়ের মধ্যে আসামীদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে।
স্বাস্থ্য সচিব (স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ) মো. সিরাজুল হক খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এনায়েতুর রহমান, বাংলাদেশ ব্রেস্ট ফিডিং ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ডা. এস কে রায় প্রমুখ।
শিশুদের বুকের দুধ খাওয়ানোর আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, শিশুকে মায়ের বুকের দুধ খাওয়ানোর হারের দিক দিয়েও পিছিয়ে নেই বাংলাদেশ। দু’বছর বয়স পর্যন্ত মায়ের বুকের দুধ পান করা শিশুর সংখ্যা বেড়ে ৮৭ দশমিক ৩ শতাংশে পৌঁছেছে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান তৃতীয়। প্রথম ও দ্বিতীয় স্থানে থাকা শ্রীলংকা ও কিউবায় এই হার যথাক্রমে ৮৮ ও ৮৭ দশমিক ৫ শতাংশ।