বাসস দেশ-৩৭ : মসজিদে বিস্ফোরণ: সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন মামুন

213

বাসস দেশ-৩৭
বিস্ফোরণ-সুস্থ
মসজিদে বিস্ফোরণ: সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন মামুন
ঢাকা, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০(বাসস) : নারায়ণগঞ্জের পশ্চিম তল্লা বায়তুস সালাহ জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় চিকিৎসাধীন মামুন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন।
বিস্ফোরণে দগ্ধ হাসপাতালে ভর্তি ৩৭ জনের মধ্যে একে একে ২৭ জনের মৃত্যু হয়। কিন্তু মামুনই একমাত্র ব্যক্তি যিনি সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরলেন।
মামুনকে আজ সোমবার সন্ধ্যায় ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।
তিনি জানান, বিস্ফোরণের ঘটনায় মামুনের শরীরের ১২ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। তবে তার শ্বাসনালী ক্ষতিগ্রস্থ হয়নি। চিকিৎসকদের পরামর্শে হাসপাতাল থেকে তাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। তবে তাকে দুই সপ্তাহ পর আবার ফলোআপ চিকিৎসার জন্য আসতে হবে। এছাড়া কোনো সমস্যা দেখা দিলে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।
মামুনের বাড়ি পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায়। নারায়ণগঞ্জের কাউসার গার্মেন্টস চাকরি করতেন তিনি।
এর আগে দুপুর দেড়টার দিকে চিকিৎসাধীনদের মধ্যে ইমরান হোসেন (৩০) নামে আরও একজনের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭ জনে দাঁড়ালো।
এদিকে চিকিৎসাধীন থাকা বাকি ৯ জনের মধ্যে আইসিইউতে ৬ এবং পোস্ট অপারেটিভে ৩ জন রয়েছেন। এদের কেউ শঙ্কামুক্ত নন বলে বাসস’র মেডিকেল সংবাদদাতা জানিয়েছেন।
মসজিদে বিস্ফোরণে দগ্ধ হয়ে এ পর্যন্ত যারা মারা গেছেন, তারা হলেন- সাংবাদিক নাদিম (৪৫),মসজিদের ইমাম আব্দুল মালেক (৬০),ইব্রাহিম (৪২), দেলোয়ার হোসেন (৪২), মোস্তফা কামাল (৩৫) সাব্বির (২১), জুয়েল (৭) জুবায়ের (১৮), হুমায়ূন কবির (৭০), জুনায়েদ (১৭), রিফাত (১৮) কুদ্দুস ব্যাপারী (৭০), জামাল (৪০), রাশেদ(৩০), মাইনুদ্দিন(১২), জয়নাল(৪০), নয়ন(২৭),কাঞ্চন (৫০), রাসেল (৩৪), বাহাউদ্দিন(৫৫), মিজান(৩৪), শামীম হাসান (৪৫) , জুলহাস(৩৫), মোহাম্মদ আলী(৫৫), আবুল বাশার (৫১) ও মনির ফরাজী(৩১) ।
শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের তল্লায় জেমস ক্লাব এলাকার বায়তুল সালাহ জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় আগুন লেগে অর্ধশতাধিক মুসল্লি দগ্ধ হন।
এদের মধ্যে ৪০জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল এবং ৩৭জনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ এন্ড প্লাস্টিক সার্জারী ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। এছাড়া এঘটনায় বাকীদেরকে নারায়নগঞ্জের স্থানীয় ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে।
বাসস/সংবাদদাতা/এমএমবি/২১৪৫/এবিএইচ