বাসস প্রধানমন্ত্রী-১ (দ্বিতীয় কিস্তি) : রাজধানীর চারদিকে এলিভেটেড রিং রোড় নির্মাণ করা হবে : প্রধানমন্ত্রী

574

বাসস প্রধানমন্ত্রী-১ (দ্বিতীয় কিস্তি)
শেখ হাসিনা-ইউ-লুপ উদ্বোধন
রাজধানীর চারদিকে এলিভেটেড রিং রোড় নির্মাণ করা হবে : প্রধানমন্ত্রী

যাত্রাবাড়ি থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত দেশের প্রথম ৮ লেনের মহাসড়ক চালু করা হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম,ঢাকা-ময়মনসিংহ রোড চারলেনে উন্নীত করা হয়েছে। যেটা শীঘ্রই ছয় লেনে উন্নীত করা হবে। ঢাকা-সিলেট রোডও ছয় লেন করা হবে।
উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত দেশের প্রথম মেট্রো রেল নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২০১৯ সালের মধ্যে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রো রেল চালু হবে। অবশিষ্ট অংশ ২০২০ সালের মধ্যে চালু হবে ইনশাল্লাহ।
সরকার প্রধান বলেন, গাজিপুর-বিমানবন্দর বাস র‌্যাপিড ট্রানজিটের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। বিমানবন্দর থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ১৬ দশমিক ৪০ কি.মি. পাতাল রেল এবং পূর্বাচল হতে কুড়িল পর্যন্ত ১০ দশমিক ২০ কি.মি. মেট্রো রেল বাস্তবায়নের কার্যক্রম গহণ করা হয়েছে।
শেখ হাসিনা বলেন, রেল এখন মাটির নিচ দিয়েও যাবে আবার উপর দিয়ে যাবে। দুইদিকেই আমরা করছি।
তিনি বলেন, হেমায়েতপুর হতে গাবতলী, মিরপুর, গুলশান হয়ে ভাটারা পর্যন্ত ১৯ দশমিক ৬০ কি.মি. এম.আর.টি লাইন-৫ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সাম্ভব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু হয়েছে। এই লাইনেও শহর এলাকায় ১৩ দশমিক ৬০ কি.মি. পাতাল রেল নির্মাণ করা হবে।
তাঁদের বাস্তবায়নকৃত হাতির ঝিল প্রকল্প রাজধানীর যানজট নিরসনে ভুমিকা রাখবে উল্লেখ করে সরকার প্রধান বলেন, আমাদের সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ঢাকার শহরের অভ্যন্তরে এই হাতির ঝিল প্রকল্প বাস্তায়নের ফলে এই এলাকার বর্জ্য মিশ্রিত পানিতে নিমজ্জিত হওয়া থেকে রক্ষা পেয়েছে এবং এই বিষাক্ত পরিবেশকে সবুজের সমারোহ দিয়ে সৌন্দর্যমন্ডিত করে গড়ে তোলা হয়েছে।
অর্থনৈতিক কর্মকান্ড বৃদ্ধি পাওয়ায় রাজধানীতে মানুষের আগমন বাড়ার প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকাকে ঘিরে যেমন রিং রোড করবো পাশাপাশি ঢাকার আশাপাশে ছোট ছোট শহর গড়ে তুলবো। যে শহরগুলো হবে বহুতল ভবন বিশিষ্ট। যে সব ভবনে সব ধরনের সমস্যা সমাধানের ব্যবস্থা থাকবে।
চলবে-বাসস/এএসজি-এফএন/২০০৬/-আসচৌ