সবাই আত্মবিশ্বাসী হলে দলগত অনুশীলন শুরু করা সম্ভব : মুশফিক

188

ঢাকা, ২৬ জুলাই ২০২০ (বাসস) : ঈদুল আজহার বিরতির পর সংক্ষিপ্ত আকারে দলগত অনুশীলনের উপর জোড় দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। তার বিশ্বাস মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের পরিবেশ আরামদায়ক ও নিরাপদ।
তিনি জানান, ব্যক্তিগত অনুশীলনের জন্য মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে আসার পর করোনাভাইরাস নিয়ে ভয় অনেকটাই দূর হয়ে গেছে।
অবশ্য মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামটি করোনাভাইরাসের কারনে রেড জোন হিসেবে বিবেচিত ছিলো, আর খেলোয়াড়দের এটি বেশ ঝুঁকিপূর্ণও হিসেবে আশঙ্কাও করা হয়েছিলো।
কিন্তু নিজেদের ফিট রাখতে শেষ পর্যন্ত মাঠে ফিরে খেলোয়াড়রা। খেলোয়াড়দের সুরক্ষার জন্য সর্বোচ্চৎ স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।
আজ অনুশীলনের প্রথম পর্ব শেষ হবার পর মুশফিক বলেন, ‘শুরুর দিকে আমি দ্বিধায় ছিলাম। একটু ভয় লাগছিল যে, কীভাবে কি হবে, আর সবকিছু ঠিক-ঠাক হবে কি-না। যেহেতু মিরপুরের আশেপাশে সব জায়গায় রেড জোন। এখানে এসে, আত্মবিশ্বাস তৈরি হয়েছে।’
তিনি আর বলেন, ‘এখানে পরিবেশ সুন্দর ও পরিষ্কার। আমি মনে করি, ব্যক্তিগত অনুশীলনে বাকি যে ৫-৬ জন আমার সঙ্গে করেছে তারাও একমত হবে। খুবই ভালো একটা পরিবেশে আমরা অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছি। যদি সকলে আত্মবিশ্বাসী হয়, তবে আমার মনে হয় গ্রুপে ১৫-২০ জন না হলেও দুই-পাঁচ বা সাতজন এক সাথে অনুশীলন শুরু করতে পারি।’
খেলোয়াড়দের জন্য কড়া প্রটোকলের অনুশীলনের ব্যবস্থা করায়, বিসিবিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মুুশফিক।
তিনি বলেন, ‘বিসিবি তাদের কাজটি দারুনভাবে সম্পন্ন করেছে। আমাদের বিসিবিকে ধন্যবাদ জানাতে হবে, বিশেষভাবে ক্রিকেট অপারেশন্স ডিপার্টমেন্টকে। সব কিছুই দারুনভাবে পরিচালনা করা হয়েছে এবং শৃঙ্খলাবদ্ধভাবে এখানে অনুশীলনের জন্য একটি ভালো পরিকল্পনা করা হয়। বক্তিগত অনুশীলনটি আমাদের ভালো ছিলো। বাড়িতে চার মাস থাকার পর সূর্যের আলোতে আমরা অনুশীলন করার সুযোগ পাই, যা আমাদের জন্যঅত্যন্ত প্রয়োজনীয় ছিলো।’