বাসস দেশ-৩১ : রেলের বেদখল জমি উদ্ধার কার্যক্রম আরো ত্বরান্বিত করার তাগিদ

244

বাসস দেশ-৩১
কমিটি-রেলপথ
রেলের বেদখল জমি উদ্ধার কার্যক্রম আরো ত্বরান্বিত করার তাগিদ
ঢাকা, ২২ জুলাই, ২০১৮ (বাসস) : রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় রেলওয়ের বেদখলকৃত জমি উদ্ধার কার্যক্রম আরো ত্বরান্বিত করার তাগিদ দেয়া হয়েছে।
সংসদ ভবনে আজ কমিটির সভাপতি এ. বি. এম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ তাগিদ দেয়া হয়।
কমিটি সদস্য রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, মোঃ সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এবং ইয়াসিন আলী সভায় অংশগ্রহণ করেন।
সভায় চট্টগ্রাম বন্দরের বে-টার্মিনালের সাথে রেলওয়ের সংযোগ স্থাপনের কার্যক্রম, চট্টগ্রাম বন্দর এলাকায় পিপিপি বা যৌথ মালিকানায় কন্টেইনার ইয়ার্ড নির্মাণ, ফয়’স লেকের রেলওয়ের জমি রেলওয়ের নিয়ন্ত্রণে আনার বিষয়ে, ঢাকার বঙ্গবাজারে রেলওয়ের জায়গায় আইকন ভবন নির্মাণের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হয়।
এছাড়া সভায় ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠেয় কার্যক্রম স্মৃতি বিজড়িত সিআরবি কাঠের বিল্ডিং এর রক্ষনাবেক্ষন, দশম জাতীয় সংসদকালীন সময় রেলপথ মন্ত্রণালয়ধীন ব্যয় বৃদ্ধি প্রকল্পের সংখ্যা, বৃদ্ধির যৌক্তিকতা, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের নাম ও ব্যয় বৃদ্ধি অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ কোন নীতিমালার আলোকে ব্যয় বৃদ্ধি করেছে এ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।
কমিটি রেলওয়ের আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে অব্যবহৃত জমি গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের আদলে পিপিপি বা সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব অথবা যৌথমালিকানায় দ্রুত অবকাঠামো নির্মাণ করার সুপারিশ করে।
সভায় রেলওয়ে কলেজ বা বিশ^বিদ্যালয় আছে সংসদীয় কমিটিকে এমন দেশ পরিদর্শনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সুপারিশ করা হয়
এছাড়াও সভায় জানানো হয়, রাজধানীর বঙ্গবাজারের নিকটস্থ ফুলবাড়িয়া আনন্দবাজার এলাকায় ২ দশমিক ৮৭ একর রেলভূমিতে ‘‘আখাউড়া থেকে লাকসাম পর্যন্ত ডুয়েলগেজ ডাবল রেল লাইন এবং বিদ্যমান রেল লাইনকে ডুয়েলগেজে রুপান্তর’’ শীর্ষক প্রকল্প হতে প্রকৌশলীদের প্রধান কার্যালয় বা আইকন ভবন নির্মাণের কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।
সভায় রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বাসস/সবি/এমআর/১৯৪৫/-আসচৌ