বাসস দেশ-২৫ : মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসকের করোনা জয় : নতুন করে ৫৬ জনের শনাক্ত

205

বাসস দেশ-২৫
মুন্সীগঞ্জ- ডিসি- করোনা জয়
মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসকের করোনা জয় : নতুন করে ৫৬ জনের শনাক্ত
মুন্সীগঞ্জ, ৫ জুন, ২০২০ (বাসস) : করোনা জয় করলেন মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার। আজ শুক্রবার তার সর্বশেষ ফলোআপ রিপোর্টেও করোনা নেগেটিভ এসেছে। তবে শুক্রবার জেলায় নতুন করে ৫৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
গত ৩ জুন জেলা প্রশাসকের করোনার ফলোআপ নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর আগেও তার ফালোপের আরেকটি পরীক্ষায় করোনা নেগটিভ আসে। পরপর দু’টি পরীক্ষায় জেলাপ্রশাসকের করোনা নেগেটিভ আসে বলে সিভিল সার্জন ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান।
‘নিপসম’ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উল্লেখ করে সিভিল সার্জন জানান, শনিবার তাঁর রিপোর্টের কাগজটি হাতে পৌঁছবে এরপরই তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে করোনা জয়ী ঘোষণা করা হবে।
দীর্ঘ প্রায় ২০ দিন ধরে আইসোলেশনে থাকা অবস্থায়ই তিনি অনলাইনে এবং ফোনে প্রশাসনিক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছেন। জেলা প্রশাসকের এই সুস্থতায় মুন্সীগঞ্জে করোনা মোকাবেলা কাজে আরও গতি আসবে।
এদিকে করোনা জয়ের খবর নিশ্চিত হওয়ার পর জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার পুরো জেলাবাসীর তথা সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।
গত ১৪ মে তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য নিপসম-এ পাঠানো হয়েছিল। এর আগে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট খান মো. নাজমুস সোয়েবের করোনা পজেটিভ আসে। তার সাথে মিটিং করার কারণেই জেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তাসহ ২৭ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। এর মধ্য থেকে ১৭ মে জেলা প্রশাসক ছাড়াও স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক এস এম শফিকের (৪২) করোনা শনাক্ত হয়। পরবর্তীতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) খান মো. নাজমুস সোয়েব করোনা জয় করেছেন। শুক্রবার সিভিল সার্জন অফিস এডিএমকে করোনা মুক্ত ঘোষণা করে।
এ দিকে মুন্সীগঞ্জে শুক্রবার নতুন করে ৫৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এই নিয়ে জেলায় ৯০৯ জনের করোনা শনাক্ত হলো। কারোনার নয় সেঞ্চুরীতে মুন্সীগগঞ্জ রেড জোনের দিকে ধাবিত হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।
গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১৪ জন করোনা জয় করেছেন। এই নিয়ে জেলায় মোট ২৬৮জন করোনা মুক্ত হলেন । এ পর্যন্ত জেলায় মারা গেছেন ২৫ জন।
এদের মধ্যে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলায় ৪১৯, টঙ্গীবাড়িতে ৬১, সিরাজদি খানে ১৩৫, লৌহজংয়ে ১০০, শ্রীনগরে ৯৫ এবং গজারিয়ায় ৯৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
সিভিল সার্জন ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, শুক্রবার ২১০টিসহ মোট ৫,৪৩৩ জনের নমুনা প্রেরণ করা হয়েছে। এরমধ্যে রিপোর্ট পাওয়া গেছে ৪৮৮৮ টি। শুক্রবার সুস্থ হওয়া ১৪ জনের মধ্যে ১০ জন মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার এবং ৪ জন গজারিয়া উপজেলার।
বাসস/সংবাদদাতা/এমএআর/২০৩২/স্বব