ফ্রান্সে করোনাভাইরাসে নতুন করে ৫৩১ জনের মৃত্যু হওয়ায় মোট সংখ্যা দাঁড়ালো ২০,৭৯৬ জনে

344

প্যারিস, ২২ এপ্রিল, ২০২০ (বাসস ডেস্ক): ফ্রান্স মঙ্গলবার জানিয়েছে, দেশটিতে গত ২৪ ঘন্টায় কোভিড-১৯ ভাইরাসে নতুন করে আরো ৫৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে হাসপাতালে ৩৮৭ জন ও নার্সিং হোমে ১৪৪ জন মারা যায়। এদিকে হাসপাতালে ও আইসিইউতে রোগীর সংখ্যা হ্রাস অব্যাহত রয়েছে। খবর এএফপি’র।
দেশটির শীর্ষ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জারোম সালোমন সংবাদিকদের জানান, এনিয়ে কোভিড-১৯ ভাইরাসে ফ্রান্সের মৃতের সংখ্যা বেড়ে মোট ২০ হাজার ৭৯৬ জনে দাঁড়ালো।
তিনি জানান, এদিকে প্রাত্যহিক হিসাবে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৪৭৮ জন কমে এখন ৩০ হাজার ১০৬ জনে দাঁড়িয়েছে। এক্ষেত্রে আশার কথা হচ্ছে হাসপতালে রোগীর সংখ্যা হ্রাসের প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে।
সালোমন আরো জানান, কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আইসিইউতে থাকা করোনা রোগীর সংখ্যা পর পর ১৩ দিনের মতো ২৫০ জন কমে এখন ৫ হাজার ৪৩৩ জনে দাঁড়িয়েছে।
তিনি জানান, ২০ হাজার ৭৯৬ জনের মধ্যে ১২ হাজার ৯০০ জন বিভিন্ন হাসপাতালে এবং ৭ হাজার ৮৯৬ জন বিভিন্ন বৃদ্ধনিবাস ও অন্যান্য নার্সিং হোমে মারা যায়।
সালোমন জানান, ফ্রান্সে এ মহামারির প্রভাব এখনো সক্রিয় রয়েছে। ফলে, এ ভাইরাস মোকাবেলা কার্যক্রম ‘আমাদেরকে পুরোদমে অব্যাহত রাখতে হবে’ বলেও তিনি জানান।
ফ্রান্সে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া রোধে গত ১৭ মার্চ লকডাউন পালন করে আসছে। তবে, প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ গত সপ্তাহে ঘোষণা দেন, আগামী ১১ মে থেকে পর্যায়ক্রমে লকডাউন তুলে নেয়া শুরু করা হবে।
ফ্রান্সের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পর্যায়ক্রমে ফের খুলে দেয়া হতে পারে। তবে ক্যাফে, সিনেমা হল এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মঞ্চগুলো বন্ধ থাকবে। দেশটিতে মধ্য জুলাইয়ের আগ পর্যন্ত গ্রীষ্মকালীন কোন উৎসব করা যাবে না।