বাসস দেশ-১৬ : ৪ কোটি ৩৭ লাখ বর্গফুট এলাকায় ডিএনসিসির জীবাণুনাশক স্প্রে

236

বাসস দেশ-১৬
ডিএনসিসি-ত্রাণ
৪ কোটি ৩৭ লাখ বর্গফুট এলাকায় ডিএনসিসির জীবাণুনাশক স্প্রে
ঢাকা, ১২ এপ্রিল, ২০২০ (বাসস) : করোনাভাইরাসের গণসংক্রমণ রোধে রাজধানীর প্রায় ৪ কোটি ৩৭ লাখ বর্গফুট এলাকায় এ পর্যন্ত ২৯ লাখ ১৬ হাজার লিটার তরল জীবাণুনাশক ছিটিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।
প্রতিদিনের মতো আজও ১ লাখ ৫৪ হাজার লিটার তরল জীবাণুনাশক প্রায় ২৩ লাখ বর্গফুট এলাকায় ছিটানো হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
আজ ১০টি ওয়াটার বাউজারের (পানির গাড়ি) সাহায্যে উত্তরা সেক্টর ৩, সেক্টর ৯, সেক্টর ১১, মিরপুর ৭নং এর আরামবাগ আবাসিক, ১১ নং পল্লবী, দুয়ারিপাড়া, মিরপুর ১৩নং এর ৩নং ওয়ার্ড, মিরপুর ২নং ও ৬নং বাজার, মিরপুর ১নং লালকুঠি বাজার, শিশু হাসপাতাল, টোলারবাগ আবাসিক, মোহাম্মদপুর, বসিলা, ফার্মগেট, কাওরানবাজার, তেজকুনিপাড়া, গুলশান ১ ও ২, বারিধারা, শাহিন কলেজ এলাকা, তেজগাও, মধ্য বাড্ডার বিভিন্ন এলাকা, মিরপর ১৩নং বিআরটিএ, মিরপুর ৮নং কমিউনিটি সেন্টার রোড, শাহ আলী মাজার রোড ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়।
এছাড়া আজ ডিএনসিসির বিভিন্ন ওয়ার্ডে মোট ৩ হাজার ৪৭৩টি পরিবারকে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের উদ্যোগে এ পর্যন্ত মোট ৬৪ হাজার ৬৬৭টি পরিবারকে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়। এদিকে নবনির্বাচিত মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।
ডিএনসিসির পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও মশক নিধনকর্মীগণ তাদের নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম ও মশকনিধন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। আসন্ন বর্ষায় ডেঙ্গুর আশংকা মাথায় রেখে পরিচ্ছন্নতা ও মশক নিধন কার্যক্রমকে সমন্বিতভাবে জোরদার করা হয়েছে।
বাসস/সবি/এমএসএইচ/২০০০/-আরজি