ইংল্যান্ডের ফাইনাল খেলা উচিত ছিলো : মরিনহো

352

মস্কো (রাশিয়া), ১৩ জুলাই, ২০১৮ (বাসস) : চলতি বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেয়া একবারের চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড। ক্রোয়েশিয়ার কাছে ২-১ গোলে হারের লজ্জা পায় তারা। নির্ধারিত ৯০ মিনিটে ম্যাচে ১-০ সমতা ছিলো। এরপর অতিরিক্ত সময়ে গোল হজম করে ম্যাচ হারতে হয় ইংলিশদের। ফলে বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলার স্বপ্ন ভেঙ্গে হয় যায়। তবে ইংল্যান্ডের ফাইনাল খেলা উচিত ছিলো বলে মনে করেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডের কোচ হোসে মরিনহো। তিনি বলেন, ‘টুর্নামেন্টের শুরু থেকে যেভাবে খেলছে ইংল্যান্ড, এজন্যই তাদের ফাইনাল খেলা উচিত ছিলো। এভাবে ইংল্যান্ডের বাদ পড়াটা উচিত হয়নি। স্বাভাবিকভাবেই এখন ইংল্যান্ডের খারাপ লাগাটা ভীষণ আকারের। তাদের পারফরমেন্স আমার ভালো লেগেছে।’
গ্রুপ পর্বে রানার্স-আপ হয়েই শেষ ষোলোতে উঠে ইংল্যান্ড। শেষ ষোলোতে কলম্বিয়ার সাথে ১-১ গোলে ড্র করে ট্রাইব্রেকারে ৪-৩ ব্যবধানে জয় পায় ইংলিশরা। কোয়ার্টার ফাইনালে সুইডেনের বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতে সেমিতে পা রাখে হ্যারি কেনের দল। তবে শেষ চারে এসে মুখ থুবড়ে পড়ে ইংল্যান্ডের। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ১২০ মিনিটের লড়াইয়ে ২-১ গোলে হার মানে ইংলিশরা। তাই ৫২ বছরের পুরনো স্মৃতি আবারো ফিরিয়ে আনতে পারলো না ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপ আসরে সর্বশেষ ১৯৬৬ সালে ফাইনাল খেলেছিলো ইংলিশরা। ঐবার শিরোপা জিতেই ছাড়ে ইংল্যান্ড।
এবারও ৫২ বছর আগে সোনালী অতীত ফিরিয়ে আনার সুর্বণ সুযোগ ছিলো ইংল্যান্ডের। কিন্তু তারা ব্যর্থ। বেশি আত্মবিশ্বাসী হওয়াটাই কাল হলো ইংল্যান্ডের বলে মনে করেন মরিনহো। বিশ্বকাপের খেলা দেখতে রাশিয়ায় থাকা মরিনহো সেখানকার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘শেষ আটের ম্যাচ জিতে অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠে ইংল্যান্ড। এত বেশি আত্মবিশ্বাসী হওয়া উচিত হয়নি তাদের। এই আত্মবিশ্বাসই কাল হলো ইংলিশদের। তারা ভেবেছিলো, আগের ম্যাচগুলোর মধ্যে সহজেই সেমিতে জিতবে। এছাড়া প্রথম গোল পেয়ে ফাইনাল খেলার স্বপ্ন দেখে ফেলে ইংল্যান্ড। কিন্তু তারা ভুলে গিয়েছিলো, ম্যাচের তখনো অনেক সময় বাকী।’
ভালো খেলার কারনেই সেমিফাইনালে উঠতে পারে ইংল্যান্ড। তবে এত দূর এসে ইংল্যান্ডের ফাইনাল খেলা উচিত ছিলো বলে মনে করেন মরিনহো। তিনি বলেন, ‘তাদের খেলা আমার মন কেড়েছে। ইংল্যান্ডের উচিত ছিলো এই দল ও এই পারফরমেন্স নিয়ে এবার ফাইনাল খেলা। দলটি সবদিক দিয়েই ভালো ও ভারসাম্যপূর্ণ ছিলো। আগের চেয়ে অনেক বেশি উন্নতি করেছে এ দলটি। এ দলের বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই বেশ তরুণ। কিন্তু সত্যি বলতে নিজেদের অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস ধ্বংস করলো ইংল্যান্ডকে।’
এবারই শিরোপা জয়ের সবচেয়ে ভালো সুযোগ ছিলো ইংল্যান্ডের। এমনও মন্তব্য করলেন মরিনহো। তিনি বলেন, ‘এবার বেশ কিছু বড়-বড় দল শেষ চারের আগেই বাদ পড়েছে। এছাড়া সেমিফাইনালে ফ্রান্সের সাথে ম্যাচ পড়েনি ইংল্যান্ডের। তাই সেমির ম্যাচ জিতে যেমন ফাইনাল খেলা উচিত ছিলো তাদের, ঠিক তেমনি শিরোপা জয় করাও উচিত ছিলো। কারন এবারই শিরোপা জয়ের সবচেয়ে ভালো সুযোগ ছিলো তাদের সামনে।’
বিশ্বকাপ জিততে না পারলেও কোচ গ্যারেথ সাউথগেটকে রেখে দেয়া উচিত বলে মনে করেন মরিনহো। তিনি বলেন, ‘আমি যদি ইংল্যান্ড ফুটবল ফেডারেশনের প্রধান হতাম, তবে আমি অবশ্যই সাউথগেটকে ইংল্যান্ডের জন্য রেখে দিতাম। এই দলটাকে দারুনভাবে তৈরি করেছে সাউথগেট। এই দল নিয়েই ভবিষ্যতে সাউথগেট ভালো করতে পারবে বলে আমার দৃঢ়বিশ্বাস।’