এবার জিম্বাবুয়েকে টি-২০ তে হোয়াইটওয়াশের মিশনে বাংলাদেশ

374

ঢাকা, ৮ মার্চ ২০২০ (বাসস) : একমাত্র টেস্ট ও তিন ম্যাচের ওয়ানডে শেষে এবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ জয়ের মিশনে নামবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। আগামীকাল থেকে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছ বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের মধ্যকার দুই ম্যাচের টি-২০ সিরিজ। প্রথম ম্যাচ জিতে সিরিজ শুরুর লক্ষ্য টাইগারদের। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হবে প্রথম টি-২০টি।
টেস্ট দিয়ে শুরু হয় বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ। ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে সিরিজের একমাত্র টেস্টটি জিতে নেয় বাংলাদেশ। এরপর তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করে মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বাধীন দলটি। যদি টি-২০ সিরিজেও জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করতে পারে বাংলাদেশ, তবে পুরো সফরেই প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিতে পারবে টাইগাররা। সিরিজ শুরুর আগে এমনই লক্ষ্য বাংলাদেশের।
লক্ষ্য পূরণের জন্য জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করাটা বাধ্যতামূলক। কিন্তু কাজটি সহজ হবে না বলে মনে করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। কারন টি-২০ ফরম্যাটে ভালো ক্রিকেট খেলে থাকে জিম্বাবুয়ে।
সিরিজ শুরুর আগে আজ সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘প্রত্যকটি ম্যাচই চ্যালেঞ্জিং। কোন কিছুই সহজভাবে নেয়ার কোন অবকাশ নেই।’
তিনি আরও বলেন, ‘টেস্ট ও ওয়ানডে ক্রিকেটে আমরা ভালো ক্রিকেট খেলেছি। কিন্তু আমরা মনে করি, টি-২০ ক্রিকেটে খুবই ভালো দল জিম্বাবুয়ে। তাদের খুবই ভালো ব্যাটিং লাইন-আপ রয়েছে। তাই তাদের হারাতে হলে আমাদের ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে আমরা মাঠে নামবো। যদি আমরা তাদের সহজভাবে নিই, তবে এটি আমাদের জন্য নেতিবাচক ফল বয়ে আনবে।’
টেস্ট ও ওয়ানডের মতও টি-২০ ক্রিকেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ফেভারিট বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত টি-২০ ফরম্যাটে ১১বার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। এরমধ্যে বাংলাদেশ সাতবার ও জিম্বাবুয়ে চারবার জয় পায়। ২০১৮ সালে সর্বশেষ দেখা হয়েছিলো দু’দলের। ঢাকায় ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজে লিগ পর্বে দু’বারই জিম্বাবুয়েকে হারায় বাংলাদেশ।
কিন্তু সর্বশেষ দ্বিপাক্ষীক সিরিজে দেশের মাটিতে জিম্বাবুয়ের সাথে দুই ম্যাচের সিরিজ ড্র করে বাংলাদেশ।
হোয়াইটওয়াশ হওয়া ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ও তৃতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে কোন লড়াই করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশকে ভয় পাইয়ে দিয়েছিলো জিম্বাবুয়ে। টেল-এন্ডারদের বিধ্বংসী ব্যাটিংএ জয়ের স্বপ্ন দেখে তারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৪ রানে ম্যাচ হারে সফরকারীরা।
দ্বিতীয় ওয়ানডের পারফরমেন্স টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশকে হারাতে সাহস দিচ্ছে বলে জানান জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক সিন উইলিয়ামস। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, টি-২০ ক্রিকেটে ম্যাচের পরিস্থিতি যেকোন সময় পরিবর্তন হতে পারে। দু’টি ডেলিভারি ম্যাচের মোড় ঘুড়িয়ে দিতে পারে। আমাদের এই দলটি তরুণ। যারা মিরপুরে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে খেলতে মুখিয়ে আছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এখন টি-২০ ক্রিকেটে পুরোপুরিভাবে মনোনিবেশ করেছি। ওয়ানডে নিয়ে খেলোয়াড়দের সাথে আলোচনা করি না। নেট সেশনে তাদের দেখে মনে হয়েছে, টি-২০ নিয়ে সুস্পষ্ট মানসিকতা রয়েছে খেলোয়াড়দের। এটি খুবই ভালো দিক। আমি মনে করি, টি-২০ ক্রিকেটে খেলার স্বাধীনতা থাকায় অনেক কিছুরই পরিবর্তন হবে। কিন্তু আমাদের খেলার মৌলিক বিষয়গুলো খুবই দুর্বল,যা আমাদের সংশোধন করতে হবে।’