বাসস ক্রীড়া-১৫ : টেস্ট ক্রিকেটে সাফল্য পেতে চান সাইফ

209

বাসস ক্রীড়া-১৫
ক্রিকেট-সাইফ
টেস্ট ক্রিকেটে সাফল্য পেতে চান সাইফ
ঢাকা, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ (বাসস) : টেস্ট ক্রিকেটে সাফল্যের জন্য আরও বেশি মনোযোগি হতে চান বাংলাদেশ দলের তরুণ ওপেনার সাইফ হাসান। এই সংস্করনে সাম্প্রতিক সময়ে তামিম ইকবাল ছাড়া ওপেনার হিসেবে অন্য কেউ তে,ন একটা ভাল করতে পারছেন না। যেখানে তামিম একাই ধারাবাহিক ।
ঘরোয়া আসরে বড় ইনিংস খেলার খ্যাতি রয়েছে সাইফের। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে নিজেকে পুরোপুরিভাবে মেলে ধরতে পারেননি তিনি।
রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের প্রথম ইনিংসে দুই বল খেলে শুন্য রানে আউট হন সাইফ। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৫ বলে ১৬ রান করেন তিনি।
অভিষেক ম্যাচের অভিজ্ঞতা থেকে সাইফ মনে করছেন,আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের মধ্যে অনেক পার্থক্য। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সাফল্য অর্জনে নিজের উইকেটের গুরুত্ব বাড়ানোর প্রয়োজন।
একই সাথে, সাইফ বুঝতে পেরেছেন একজন সফল টেস্ট ব্যাটসম্যান হতে হলে অনুশীলন পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনতে হবে এবং উপায়ও পেয়ে গেছেন তিনি।
আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের অনুশীলন শেষে সাইফ বলেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টেও দ্বিতীয় ইনিংসে আমি ভালো বোধ করছিলাম, দুভার্গ্যক্রমে বল নিচু হয়ে গিয়েছিলো। আমি যা বুঝতে পারলাম, আমার ফোকাস লেভেলে ঘাটতি ছিলো। আমি আরও ভালোভাবে বলটি খেলতে পারতাম। বুঝতে পারলাম এখানে সফল হবার জন্য আমার মনোযোগ বাড়াতে হবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘অনুশীলন পদ্ধতি পরিবর্তন করতে হবে। যখন আমি নেটে ব্যাট করবো, আউট হওয়া থেকে আমাদের আরও বেশি সর্তক হতে হবে। যদি আমি নেটে সেশনে এটি অভ্যাস করতে পারি তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেটি অনেক উপকারে আসবে।’
‘তাই আমি যখনই নেট সেশন করতে আসি, আমি চেষ্টা করেছি নতুন বলে আউট না হতে এবং যতটা পেরেছি আমি বল খেলেছি। আমি নেটে সেশন বাই সেশন খেলার চেষ্টা করেছি এবং এভাবেই অনুশীলন চালিয়ে গিয়েছি।’
সাইফ ভালোভাবেই জানতেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিয়মিত হতে হলে দ্রুতই যেকোন উপায়ে সফল হতে হবে।
তামিম ছাড়া ওপেনিং কোন ব্যাটসম্যানই নিজের জায়গাটি পাকাপোক্ত করতে পারেননি। তাই নির্বাচকরা বাধ্য হয়েই ওপেনিংএ বারবার পরিবর্তন আনেন।
সাইফ বলেন, ‘শৈশব থেকেই, তামিমের সাথে ওপেনিং করার স্বপ্ন ছিলো। স্বপ্ন পূরণ হয়েছে, তবে এখন ক্যারিয়ার দীর্ঘ করার সময় এসেছে। আমি জানি, যদি আমি ভালো খেলতে না পারি, তবে সুযোগ পাবো না।’
টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশ যখন হতাশার বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে, ঠিকই তখনই দলে আসেন সাইফ। টানা ছয় টেস্টে হেরেছে দল। এরমধ্যে পাঁচটি ছিলো ইনিংস ব্যবধানে হার।
সাইফ জানান, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে জয় দিয়ে হারের বৃত্ত থেকে বের হতে বাংলাদেশ দল বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, ‘জিম্বাবুয়েকে ছোট ভাবার কোন সুযোগ নেই। প্রতিটি দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ দিয়ে থাকে। তবে যে দলই হোক-না কেন আমাদের পরিকল্পনা ও প্রক্রিয়া ঠিক রাখতে হবে।’
‘পাকিস্তানের বিপক্ষে হারের পর আমরা এক সাথে বসেছিলাম এবং সিদ্বান্ত নিয়েছি এই বৃত্ত থেকে বের হয়ে আসতে আমাদের কিছু করতে হবে। ভালো করার জন্য আমাদের কিছু নির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। আশা করছি, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে আমাদের পরিকল্পনাগুলো ভালোভাবে সম্পাদন করতে পারবো।’
বাসস/এএমটি/২০৪৫/স্বব