বাসস ক্রীড়া-৯ : টেস্ট-টি২০ খেললে পাকিস্তান সফরে যেতেন মাশরাফি

180

বাসস ক্রীড়া-৯
ক্রিকেট-বঙ্গবন্ধু বিপিএল
টেস্ট-টি২০ খেললে পাকিস্তান সফরে যেতেন মাশরাফি
ঢাকা, ১০ জানুয়ারি ২০২০ (বাসস) : আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টেস্ট,টি-২০ খেললে পাকিস্তান সফরে যেতেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। আজ বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে ঢাকা প্লাটুন ও রংপুর রেঞ্জার্সের ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের অনিশ্চিয়তায় দুলতে থাকা পাকিস্তান সফর নিয়ে এমন কথা বলেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘পরিবারের সাথে কথা বলে সিদ্বান্ত নিয়ে আমি পাকিস্তান সফরে যেতাম।’
২০০৯ সালের পর থেকে টেস্ট খেলছেন না মাশরাফি। ২০১৭ সালের এপ্রিলে টি-২০ থেকে অবসর নেন তিনি। তবে এখনও ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি। বর্তমানে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছে বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফরে রয়েছে দু’টি টেস্ট ও তিনটি টি-২০। সেই সফরে নেই কোন ওয়ানডে। তাই পাকিস্তান সফর নিয়ে কোন মাথাব্যাথা নেই মাশরাফি। কিন্তু বর্তমানে পাকিস্তান সফর নিয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেট সরগরম। বাংলাদেশ কি পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে না-কি যাচ্ছে না! তা এখনো নিশ্চিত নয়।
তারপরও পাকিস্তান সফর নিয়ে প্রশ্ন শুনতে হলো মাশরাফিকে। টেস্ট,টি-২০ ফরম্যাটে খেললে কি পাকিস্তান সফরে যেতেন মাশরাফি? তিনি বলেন , ‘সত্যিই যদি জানতে চান তাহলে আমি বলবো, আমি পাকিস্তানে যেতাম।’
তবে পরিবারের সাথে আলোচনা করতেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই পরিবারের সাথে আলাপ-আলোচনা করতাম। জানি না পরিবার কি বলতো। কারণ, এই প্রথম এ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। আমার পরিবারের সিদ্ধান্তে যদিও অনেক কিছু নির্ভর করে। পরিবার আপত্তি না করলে আমি অবশ্যই যেতাম।’
কিছুদিন আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানান, পাকিস্তান সফরে কোচিং স্টাফরা ও মুশফিকুর রহিম যেতে চান না। তবে প্রধান কোচের সাথে কিছু খেলোয়াড় যেতে চাইলেও সেটি স্বল্প সময়ের জন্য।
টেস্ট,টি-২০তে দলে থাকলে পাকিস্তানে যেতে মাশরাফি। কিন্তু যারা যেতে চান না, তারা ভুল করছে এমনটাও নয় বলে পরিস্কার করলেন ম্যাশ, ‘আমি যেতাম বলেই যে যারা যাচ্ছেন না তাদের ভুল করছে, এমন ভাবার সুযোগ নেই। দলের যদি কেউ যেতে না চায়, সেটা একান্তই তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। তাদের যুক্তি অবশ্যই আছে। অবশ্যই খেলার থেকে জীবন সবার আগে। সবারই ব্যক্তিগত সিদ্বান্ত রয়েছে। আর যেহেতু যাওয়ার ব্যাপারে কোনো বাধ্যবোধকতা নেই। তাই যে যা সিদ্বান্ত নিবে, তারা প্রত্যেকেই নিজেদের জায়গা ঠিক আছে।’
বাসস/এএসজি/এএমটি/২০০০/স্বব