৩৩ লাখ জনগণকে বিশ্বকাপ উপহার দিতে চান সুয়ারেজ

195

নিজনি নভগোরোদ (রাশিয়া), ৫ জুলাই ২০১৮ (বাসস) : গ্রুপ পর্বে তিন ম্যাচ জিতে শেষ ষোলো নিশ্চিত করে উরুগুয়ে। শেষ ষোলোতে পর্তুগালকে বিধ্বস্ত করে এখন কোয়ার্টার ফাইনালে উরুগুয়ে। আগামীকাল ফ্রান্সের বিপক্ষে শেষ আটের লড়াইয়ে নামবে উরুগুয়ে। এ ম্যাচে জিততে মরিয়া উরুগুয়ের তারকা খেলোয়াড় লুইস সুয়ারেজ। তিনি বলেন, ‘আমরা যেভাবে খেলছি, এভাবেই খেলতে পারলে বিশ্বকাপ জয়ের পথে আমাদের কেউই আটকাতে পারবে না। আমাদের সাফল্যের জন্য দেশের ৩৩ লাখ জনগন অস্থির হয়ে আছে। দীর্ঘদিন পর আবারো দেশের মানুষকে বিশ্বকাপ উপহার দিতে চাই।’
গ্রুপ পর্বে স্বাগতিক রাশিয়া, সৌদি আরব ও মিসরকে হারায় ১৯৩০ ও ১৯৫০ সালে বিশ্বকাপ জয় করা উরুগুয়ে। তিন ম্যাচেই দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়েছে দলটি। তাই শেষ ষোলোর টিকিট পেতে কোন সমস্যাই হয়নি উরুগুয়ের। শেষ ষোলোতে পর্তুগালের বিপক্ষে শুরুতেই লিড নেয় উরুগুয়ে। এডিসন কাভানির গোলে লিড পায় তারা। ৫৫ মিনিটে পর্তুগাল গোল পরিশোধ করে দিলেও, ৬২ মিনিটে আবারো দলের ত্রাণকর্তার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন কাভানি। শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে উরুগুয়ে। তবে এ ম্যাচে নজরকাড়া পারফরমেন্স ছিলো উরুগুয়ের। ফলে বিশ্বকাপ জয়ের পথে ভালোভাবেই টিকে আছে উরুগুয়ে।
ছোট্ট দেশ উরুগুয়ের জন্য এবারের বিশ্বকাপ জিততে চান দলের সেরা তারকা সুয়ারেজ। তিনি বলেন, ‘দেশ থেকে প্রচুর বার্তা পাচ্ছি। আমাদের সাহস যোগাচ্ছে দেশের জনগণ। বুঝতে পারছি, সেখানে আমাদের সাফল্যের জন্য সবাই গভীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে। আমাদের সাফল্যের জন্য জনগণ অস্থির হয়ে আছে। এজন্যই দেশের জার্সি গায়ে পরে খেলতে নামলেই অনেক বেশি উৎসাহ পাই।’
দেশের হয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছেন সুয়ারেজ। কারণ, আর্জেন্টিনা-পর্তুগালের মতো বড় বড় দেশগুলোর বিশ্বকাপ থেকে ছুটি হয়ে গেছে। অথচ উরুগুয়ে বিশ্বকাপ জয়ের পথে ভালোভাবে টিকে রয়েছে। সুয়ারেজ বলেন, ‘আমাদের দেশের জনসংখ্যা মাত্র ৩৩ লাখ। আর্জেন্টিনার জনসংখ্যা চার কোটি। কিন্তু তারা বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়েছে। অথচ আমরা বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলবো। তাই উরুগুয়ের জার্সি গায়ে খেলতে নামাটা গর্বের মতো।’
কোয়ার্টার ফাইনালের উরুগুয়ের প্রতিপক্ষ ফ্রান্স। প্রতিপক্ষকে নিয়ে কেমন ভাবনা সুয়ারেজ ও তার সতীর্থদের? সুয়ারেজ বললেন, ‘এবারের ফ্রান্স দলটি অনেক বেশি শক্তিশালী ও ভারসাম্যপূর্ণ। গ্রুপ পর্বে ও শেষ ষোলোতে তাদের খেলা দেখে তেমনই মনে হয়েছে। দলে দারুণ সব খেলোয়াড় রয়েছে। এমবাপে খুবই ভালো খেলোয়াড়। অনেকটা থিয়েরি অঁরির মতো খেলে সে। আমার মনে হয় শেষ আটের লড়াইয়ে আমরা এমবাপেকে আটকাতে পারবো। কারণ, আমাদের রক্ষণভাগ অনেক ভালো।
কোয়ার্টার ফাইনালে ফ্রান্সের মুখোমুখি হবার আগে চিন্তার ভাঁজ উরুগুয়ের কপালে। সেই তালিকা থেকে বাদ পড়েননি সুয়ারেজ। উরুগুয়ের মাথাব্যথার আসল কারণ, আগের ম্যাচের হিরো কাভানির ইনজুরি। তাই কাভানির খেলা নিয়ে সংশয় রয়েছে গেছে। তবে মনে০প্রাণে কাভানিকে ম্যাচ চলাকালীন পাশেই চাইছেন সুয়ারেজ। তিনি বলেন, ‘দেশের ৩৩ লাখ জনগণের মতো আমিও কাভানির ইনজুরি নিয়ে চিন্তিত। আমি মনে-প্রাণে চাইছি কাভানি ফ্রান্সের বিপক্ষে খেলতে নামুক।’