বাসস ক্রীড়া-১৫ : মুস্তাফিজ-তাসকিন জ্বলে উঠবেই : রুশো

355

বাসস ক্রীড়া-১৫
ক্রিকেট-বঙ্গবন্ধু বিপিএল
মুস্তাফিজ-তাসকিন জ্বলে উঠবেই : রুশো
চট্টগ্রাম, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯ (বাসস) : বাংলাদেশের পেস বিভাগের দুই সেরা তারকা মুস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদ। তবে সম্প্রতি পারফরমেন্সে উজ্জল নন তারা। নিজেদের খুঁজে ফিরছেন তারা। ধারনা করা হয়েছিলো বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট দিয়ে নিজেদের চেহারায় ফিরবেন মুস্তাফিজ-তাসকিন। কিন্তু না।
চলতি বিপিএলে এ পর্যন্ত দু’জনে মিলে ৭টি ম্যাচ খেলেছেন। কিন্তু অতীতের মত তাদের বোলিং নেই কোন ঝাঁজ। মুস্তাফিজ চার ম্যাচে ১১১ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট। সেখানে তাসকিন নিষ্প্রভ। তিন ম্যাচে ৭৬ রান দিয়ে এখনো উইকেট শিকারের আনন্দে মাততে পারেননি তিনি। তবে মুস্তাফিজ-তাসকিন খুবই দ্রুতই নিজেদের সেরা ফর্মে বলে মনে করেন খুলনা টাইগার্সের দক্ষিণ আফ্রিকার খেলোয়াড় রিলি রৌসু।
আজ মুস্তাফিজ-তাসকিনকে খেলেছেন রুশো । তাদের বিপক্ষে সাবলীলভাবে রানও তুলেছেন তিনি। ৩১ বলে রুশোর অপরাজিত ৬৬ রানের সুবাদে বিপিএলে হ্যাট্টিক জয়ের স্বাদ নেয় খুলনা। ম্যাচ শেষে মুস্তাফিজ-তাসকিনের ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে ইতিবাচক কথা বলেন এ প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। তিনি বলেন, ‘আসলে মানসিকভাবে শক্ত না থাকলে এই ফরম্যাটে ভালো পারফরমেন্স করা কঠিন। তাদের দল টানা চার ম্যাচ হেরেছে। তাই ভালো পারফর্ম করা অনেক কঠিন। মুস্তাফিজুর-তাসকিন ভালো মানের বোলার, কিন্তু মাঠে মোমেন্টাম পরিবর্তন করার জন্য একজনকে এগিয়ে আসতে হবে। তবে আমি নিশ্চিত তারা ঘুরে দাঁড়াবে। কারন তারা পেশাদার খেলোয়াড়। আমি নিশ্চিত তারা ভালো পারফর্ম করবে।’
গত আসরের মত এবারও বিপিএলে দুর্দান্ত খেলছেন রুশো। রংপুর রাইডার্সের হয়ে গত আসরে ১৪ ম্যাচে একটি সেঞ্চুরিসহ সর্বোচ্চ ৫৫৮ রান করে ছিলেন তিনি। যা ছিল বিপিএলের ইতিহাসে এক আসরে সর্বোচ্চ রানও। এবার ৩ ইনিংসে এখন পর্যন্ত ২টি হাফ-সেঞ্চুরিতে ১৭২ রান করেছেন রুশো। বিপিএলে ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার কারন হিসেবে তিনি বলেন, ‘কোনো রহস্য নেই আসলে। আমি বিশ্বাস করি, আপনি যেটা করবেন সেটা উপভোগ করতে হবে ও সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। আমি ভাগ্যবান যে এমন একটা দল পেয়েছি, যারা আমার পাশে আছে। আমি ক্রিকেট খেলাটা উপভোগ করি এবং ভালোবাসি। এখানে কোনো রহস্য নেই।’
আজ রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ৩১ বলে ৬৬ রান করেন রুশো। এই ইনিংস খেলার পথে হাফ-সেঞ্চুরি করে নেচে তা উদযাপন করেন তিনি। এ ব্যাপারে রৌসু বলেন, ‘প্লে-স্টেশন ফিফা গেমে (ভিডিও গেম) ঠিক এমনই একটি উদযাপন রয়েছে। সেখান থেকেই শিখেছি। তাই আজ ফিফটির পর সেভাবেই উদযাপন করলাম। অবশ্য সতীর্থদের আগেই বলে রেখেছিলাম, আজ বড় ইনিংস খেলতে পারলে এভাবেই উদযাপন করবো।’
বাসস/এএসজি/এএমটি/২৩০০/-স্বব