বাসস ক্রীড়া-১৩ : পার্থ টেস্ট- অস্ট্রেলিয়ার ৪১৬ রানের পর বিপাকে নিউজিল্যান্ড

228

বাসস ক্রীড়া-১৩
ক্রিকেট-পার্থ টেস্ট
অস্ট্রেলিয়ার ৪১৬ রানের পর বিপাকে নিউজিল্যান্ড
পার্থ, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ (বাসস) : ডান-হাতি ব্যাটসম্যান মার্নাস লাবুশেনের ১৪৩ রানের সুবাদে পার্থ টেস্টে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৪১৬ রানে বড় সংগ্রহ দাঁড় করয়েছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। অসি ইনিংস শেষে ব্যাট হাতে নেমে বিপাকে পড়েছে সফরকারী নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় দিন শেষে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১০৯ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়েছে কিউইরা। ফলে ৫ উইকেট হাতে নিয়ে এখনো ৩০৭ রানে পিছিয়ে নিউজিল্যান্ড।
দিবা-রাত্রির টেস্টে প্রথম দিনই সেঞ্চুরি করেন লাবুশেন। টানা তিন ইনিংস সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি। তার অপরাজিত ১১০ রানের সুবাদে প্রথম দিন শেষে ৯০ ওভারে ৪ উইকেটে ২৪৮ রান করে অস্ট্রেলিয়া। লাবুশেনের সাথে ২০ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন ট্রাভিস হেড।
দ্বিতীয় দিনের শুরু থেকে সাচ্ছেন্দ্যে ব্যাট করছিলেন লাবুশেন ও হেড। ফলে দু’জনের হাত ধরে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস তিনশ স্পর্শ করে। কিন্তু এরপরই লাবুশেনকে থামিয়ে দেন নিউজিল্যান্ডের বাঁ-হাতি পেসার নিল ওয়াগনার। বোল্ড হবার আগে ২৪০ বলে ১৪৩ রান করেন লাবুশেন। তার ইনিংসে ১৮টি চার ও ১টি ছক্কা ছিলো।
লাবুশেনের বিদায়ের পর হাফ-সেঞ্চুরি তুলে থামেন হেড। ১০টি চারে ৯৭ বলে ৫৬ রান করে নিউজিল্যান্ডের পেসার টিম সাউদির বলে আউট হন হেড। দলীয় ৩২৫ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফিরেন হেড।
পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা ছোট-ছোট ইনিংস খেলে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর চারশ অতিক্রম করান। অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক টিম পাইন ৩৯, পেসার মিচেল স্টার্ক ৩০ ও প্যাট কামিন্স ২০ রান করে ফিরেন। আর অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস থামে ৪১৬ রানে। নিউজিল্যান্ডের সাউদি-ওয়াগনার ৪টি করে উইকেট নেন।
চা-বিরতির পর নিজেদের ইনিংস শুরু করে নিউজিল্যান্ড। ইনিংসের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলেই ওপেনার টম লাথামকে হারায় নিউজিল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ার স্টার্কের বলে শুন্য হাতে ফিরেন লাথাম। পরের ওভারে নিউজিল্যান্ড শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন অস্ট্রেলিয়ার ডান-হাতি পেসার জশ হ্যাজেলউড। আরেক ওপেনার জিত রাভালকে বোল্ড করেন হ্যাজেলউড। লাথাম না পারলেও, রাভাল রানের খাতা খুলে ১ করেন। ফলে ১ রানেই দুই ওপেনারকে হারিয়ে শুরুতেই মহা চাপে পড়ে নিউজিল্যান্ড।
এরপর ৭৬ রানের জুটি গড়ে শুরুর ধাক্কা সামাল দেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও রস টেইলর। জমে উঠা জুটিতে ভাঙ্গন ধরান স্টার্ক। ৩৪ রান করে বিদায় নেন উইলিয়ামসন। কিউই অধিনায়ককে শিকারের পর নিউজিল্যান্ডের মিডল-অর্ডারের আরও দুই ব্যাটসম্যানকে শিকার করেন স্টার্ক। হেনরি নিকোলস ৭ ও ওয়াগনার শূন্য রান করে স্টার্কের শিকার হন। ২৯তম ওভারের শেষ দুই ফিরেন তারা।
এরপর দিনের বাকী ৩ ওভারে নিউজিল্যান্ডের আর কোন উইকেটের পতন ঘটেনি। ফলে টেস্ট ক্যারিয়ারের ৩৩তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ পাওয়া টেইলর ৬৬ ও উইকেটরক্ষক বিজে ওয়াটলিং শুন্য রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছেন। টেইলরের ৮৬ বলের ইনিংসে ৮টি চার ছিলো। অস্ট্রেলিয়ার স্টার্ক ৩১ রানে ৪ উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
অস্ট্রেলিয়া : ৪১৬/১০, ১৪৬.২ ওভার (লাবুশেন ১৪৩, হেড ৫৬, ওয়াগনার ৪/৯২)।
নিউজিল্যান্ড : ১০৯/৫, ৩২ ওভার (টেইলর ৬৬*, উইলিয়ামসন ৩৪, স্টার্ক ৪/৩১)।
বাসস/এএসজি/এএমটি/২০৫৫/-স্বব