বাসস প্রধানমন্ত্রী-৭ : ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট ম্যাচের প্রথম দিনের খেলা দেখে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রীর কলকাতা ত্যাগ

281

বাসস প্রধানমন্ত্রী-৭
শেখ হাসিনা-কলকাতা- ত্যাগ
ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট ম্যাচের প্রথম দিনের খেলা দেখে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রীর কলকাতা ত্যাগ
কলকাতা, ২২ নভেম্বর ২০১৯ (বাসস) : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর দিনব্যাপী কলকাতা সফর শেষে আজ রাতেই ঢাকার উদ্দেশ্যে কলকাতা ত্যাগ করেছেন।
কলকাতায় অবস্থানকালিন তিনি অপরাহ্নে ইডেন গার্ডেনস-এ বাংলাদেশ-ভারত ক্রিকেট সিরিজের দ্বিতীয় টেষ্ট ম্যাচের প্রথম দিনের খেলা উপভোগ করেন।
তিনি স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে সংগে নিয়ে ইডেন গার্ডেনস-এ ভারতে প্রথম বারের মত গোলাপি বলে অনুষ্ঠিত দিবা-রাত্রির এই ঐতিহাসিক টেষ্ট ম্যাচটি ঘন্টা বাজিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন।
ম্যাচ উপভোগের ফাঁকে তাঁর স্বল্প সময়ের কলকাতা সফরে প্রধানমন্ত্রী পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকেও মিলিত হন।
মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর কলকাতায় অবস্থানকালিন হোটেল তাজ বেঙ্গলে সৌজন্য সাক্ষাতে আসেন।
বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইট প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর সফরসঙ্গীদের নিয়ে স্থানীয় সময় রাত ১১টায় নেতাজী সুভাষ চন্দ্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়।
কলকাতার মেয়র এবং পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নগর উন্নয়ন এবং পৌরসভা বিষয়ক মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান।
বিমানটির ঢাকার স্থানীয় সময় রাত ১২টা ৩০ মিনিটে (প্রায়) হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে।
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় এই ঐতিহাসিক দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচ দেখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ জানান। ২২ নভেম্বর থেকে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত ইডেন গার্ডেনস-এ এই খেলা চলবে।
প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচের প্রথমার্ধের খেলা দেখার পর তার আবাসস্থল হোটেলে ফিরে যান। তিনি সন্ধ্যায় পুনরায় স্টেডিয়ামে ফেরেন। প্রধানমন্ত্রী প্রথম দিনের ম্যাচের পর ইডেন গার্ডেন স্টেডিয়ামে বেঙ্গল ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও যোগ দেন।
বিসিসিআই’র সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি এরআগে কলকাতায় দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ খেলা দেখতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।
বাসস/এসএইচ-এএইচজে/অনু-এফএন/২৩৫৫/স্বব