‘গণহত্যা দিবস’ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেলে ইতিহাস বিকৃতি বন্ধ হবে : বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন

273

ঢাকা, ২৫ মার্চ, ২০১৮ (বাসস) : ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ পাকিস্তান বাহিনীর বর্বর গণহত্যা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেলে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি বন্ধ হবে।
আজ রাজধানীর তোপখানায় বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘একাত্তরের গণহত্যা ও মানবতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, ২৫ মার্চ পাকিস্তান সেনাবাহিনী অপারেশন সার্চলাইট অভিযানের নামে নির্বিচারে বাঙালি নারী-পুরুষ, শিশু থেকে বৃদ্ধ-বৃদ্ধাকে হত্যা করা হয়। এই হত্যাকান্ডের দিবস ২৫ মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে জাতিসংঘ কর্তৃক ঘোষণা করার জন্য তিনি বিশ্বনেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।
বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের উদ্যোগে জাতীয় গণহত্যা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. গনি মিয়া বাবুল সভাপতিত্ব করেন।
অনুষ্ঠানে উদ্বোধক বক্তা ছিলেন গণতদন্ত কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো: শামসুল হুদা।
প্রধান আলোচক ছিলেন সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম,মুক্তিযুদ্ধ ৭১ এর সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক সেনা প্রধান লেফ্টেনেন্ট জেনারেল (অবঃ) এম. হারুন-অর-রশিদ বীর প্রতীক।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথিহিসেবে বক্তৃতা করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষাসৈনিক শামসুল হুদা,বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এম এ সালাম খান ও কবি আসলাম সানি।
অনুষ্ঠানের শুরুতে ২৫ মার্চ কালরাতের শহীদদের স্মরণে একমিনিট নীরবতা পালন ও তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।